২৫০০ বছরের পুরোনো নীল নদের তীরে ১৩টি অক্ষত মমি আবিষ্কার

প্রায় আড়াই হাজার বছরের পুরোনো মিসরের গিজা শহরে ১৩টি কফিন (মমি) আবিষ্কৃত হয়েছে। রোববার দেশটির কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, কফিনগুলোকে অক্ষত অবস্থায় আবিষ্কার করা হয়।

বার্তা সংস্থা সিনহুয়া এক প্রতিবেদনে জানায়, মিসরের বিখ্যাত নীল নদের তীরে গিজা শহরের সাকারা নেক্রোপলিস এলাকায় একটি প্রত্নতাত্ত্বিক সাইট থেকে এসব কফিন আবিষ্কার করা হয়।তিনটি সিল করা জায়গায় ১১ মিটার গভীর সুরক্ষিত খাদের ভেতরে কফিনগুলো পাওয়া যায়।

মিসরীয় সভ্যতার অমূল্য এসব নিদর্শন আবিষ্কারের পর পরই সাইটটিতে পরিদর্শনে যান মিসরের পর্যটন ও মিসরীয় সভ্যতার অমূল্য এসব নিদর্শন আবিষ্কারের পর পরই সাইটটিতে পরিদর্শনে যান মিসরের পর্যটন ও প্রত্নতত্ব বিষয়কমন্ত্রী খালেদ আল আনানি এবং প্রত্নতাত্ত্বিক কাউন্সিলের সেক্রেটারি জেনারেল মোস্তাফা ওয়াজিরি।
মন্ত্রী খালেদ আল আনানি বলেন, ‘আসাসিফ সমাধিস্থল আবিষ্কারের পর এটাই বেশি সংখ্যক কফিনের সন্ধানের ঘটনা।’২০১৯ সালের অক্টোবরে লাক্সার প্রদেশে আসাসিফ সমাধিস্থলে ৩০টি প্রাচীন কফিন আবিষ্কৃত হয়েছিল।

বিষয়কমন্ত্রী খালেদ আল আনানি এবং প্রত্নতাত্ত্বিক কাউন্সিলের সেক্রেটারি জেনারেল মোস্তাফা ওয়াজিরি।
মন্ত্রী খালেদ আল আনানি বলেন, ‘আসাসিফ সমাধিস্থল আবিষ্কারের পর এটাই বেশি সংখ্যক কফিনের সন্ধানের ঘটনা।’২০১৯ সালের অক্টোবরে লাক্সার প্রদেশে আসাসিফ সমাধিস্থলে ৩০টি প্রাচীন কফিন আবিষ্কৃত হয়েছিল।

সাকারায় খননকাজে প্রত্নতাত্ত্বিক মিশনের নেতৃত্ব দেওয়া মোস্তাফা ওয়াজিরি বলেন, ‘সাকারায় আবিষ্কৃত বর্ণিল কাঠের কফিনগুলো একটি দুর্দান্ত সংগ্রহ। আড়াই হাজার বছর পেরিয়ে যাওয়ার পরও এগুলোর রং এবং শিলালিপি এখনো ভালো অবস্থানে আছেন।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

error: Content is protected !!