২০৩৬ সাল পর্যন্ত ক্ষমতায় থাকার বৈধতা পেয়েছেন পুতিন

ডেস্ক রিপোর্ট:

আরো ১৬ বছর ক্ষমতায় থাকার বৈধতা পেয়েছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। দেশটিতে গত সাত দিন ধরে চলা গণভোটের প্রাথমিক ফলাফলে এই তথ্য পাওয়া গেছে। দেশটির অধিকাংশ ভোটারই তাকে ক্ষমতায় রাখতে সংবিধান পরিবর্তনে সায় দিয়েছেন। এর মধ্য দিয়ে আগামী ২০৩৬ সাল পর্যন্ত দেশ শাসনের বৈধতা অর্জন করেছেন পুতিন। 

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম থেকে জানা যাচ্ছে, প্রেসিডেন্ট হিসেবে পুতিনের দায়িত্ব পালনের জন্য সংবিধান সংশোধনের লক্ষ্য নিয়ে আয়োজিত নির্বাচনে এ পর্যন্ত শতকরা ৯০ ভাগ ভোট গণনা করা হয়েছে। রাশিয়ার সেন্ট্রাল ইলেকশন কমিশন জানিয়েছে, শতকরা ৭৮ ভাগ ভোটার পুতিনের প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালনের পক্ষে সমর্থন দিয়েছেন আর ২১ ভাগ ভোটার তার বিপক্ষে ভোট দিয়েছেন। সাংবিধানিক পরিবর্তনের এই ভোটাভুটিতে রাশিয়ার শতকরা ৬৫ ভাগ ভোটার ভোট দিয়েছেন।

ভোট দিতে রাশিয়ানদের বিভিন্ন পুরস্কার দেওয়ার ঘোষণা দেওয়া হয়। তবে এর মধ্যেও দেশটিতে গণভোটের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ হয় এবং এ সময় বেশ কয়েকজনকে গ্রেফতারও করা হয়। গতকাল দুপুর পর্যন্ত ৬০ শতাংশ ভোট পড়ে বলে কমিশন জানিয়েছে। এই গণভোটে রায় আসায় রুশ গোয়েন্দা সংস্থা কেজিবির সাবেক কর্মকর্তা পুতিন (৬৭) আরো দুই মেয়াদে প্রেসিডেন্ট পদে থাকতে পারবেন।

পুতিন গত দুই দশক ধরে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট এবং প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। তার বর্তমান ক্ষমতার মেয়াদ শেষ হবে ২০২৪ সালে।সাংবিধানিক এই পরিবর্তনের কারণে তিনি আরো ১৬ বছর প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করতে পারবেন।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

error: Content is protected !!