২০০ কোটি টাকা নিয়ে কানাডায় পালিয়েছেন প্যারাডাইস গ্রুপ চেয়ারম্যান

বাংলাদেশের বেসরকারি আরব বাংলাদেশ ব‌্যাংক (এবি ব্যাংক) থেকে ২০০ কোটি টাকা ঋণ নিয়ে কানাডায় পালিয়ে গেছেন প্যারাডাইস গ্রুপের চেয়ারম্যান মো. মোশাররফ হোসেন। এ ঘটনায় মামলা করেছে এবি ব্যাংক কর্তৃপক্ষ। মামলায় এবি ব্যাংকে ঋণ খেলাপি গ্রাহক প্যারাডাইস গ্রুপের চেয়ারম্যান ও এমডিসহ অন্য তিন পরিচালকের নামে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছে আদালত।

গ্রেফতারি পারোয়ানার পর গুলশান থানা পুলিশ প্যারাডাইস গ্রুপের চেয়ারম্যানের বাসায় গ্রেফতার অভিযানে গেলে জানা যায় তিনি তার পরিবারসহ কানাডায় পালিয়ে গেছেন।

জানা গেছে, এবি ব্যাংক থেকে প্রায় ২০০ কোটি টাকা খেলাপি ঋণ রয়েছে প্যারাডাইস গ্রুপভুক্ত দুটি প্রতিষ্ঠানের নামে। ওই ঋণ পরিশোধ না করায় প্যারাডাইস গ্রুপের চেয়ারম্যান মো. মোশাররফ হোসেন ও তার স্ত্রী মাহবুবা মোশাররফ, ব্যবস্থাপনা পরিচালক মজিবর রহমান, পরিচালক মনিয়ার হোসেন ও মোবারক হোসেনের নামে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন আদালত।

ব্যাংক সূত্রে জানা গেছে, ৩১ আগস্ট পর্যন্ত এবি ব্যাংকে প্যারাডাইস স্পিনিং মিলের নামে খেলাপি ঋণের স্থিতি দাঁড়ায় ১২৩ কোটি ৬৭ লাখ টাকা। একই সময়ে প্যারাডাইস কেবলসের খেলাপি ঋণের স্থিতি দাঁড়ায় ৭৫ কোটি ২০ লাখ টাকা।

গ্রেফতারি পরোয়ানা পেয়ে মঙ্গলবার (২৯ সেপ্টেম্বর) রাতে গ্রুপের চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেনের গুলশানের বাসায় অভিযান চালায় পুলিশ। তবে ওই বাসায় তাকে পাওয়া যায়নি।

এ বিষয়ে বুধবার (৩০ সেপ্টেম্বর) রাতে গুলশান থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. ফেরদৌস বলেন, চেক জালিয়াতির মামলায় গ্রেফতারি পরোয়ানাভুক্ত আসামি প্যারাডাইস গ্রুপের চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেনের বাসায় গেলে সেখানে কাউকে পাওয়া যায়নি। গুলশানের ওই বাসায় আমরা তালা ঝুলে থাকতে দেখেছি। তিনি বর্তমানে পলাতক রয়েছেন।

তিনি আরও বলেন, ওই বাসার কেয়ারটেকার জানায়, মোশাররফ হোসেন ও তার পরিবার কানাডায় অবস্থান করছেন। তবে এ বিষয়ে সঠিক কোনো তথ্য এখনও আমরা পাইনি। এদিকে এ মামলায় প্যারাডাইস গ্রুপের এমডি ও পরিচালকসহ বাকি চারজন আদালত থেকে জামিন নিয়ে রিকল দিয়ে গেছেন। তবে গ্রুপের চেয়ারম্যান মোশাররফ এখনও পলাতক রয়েছেন। আসামি মোশাররফ হোসেন দেশে রয়েছেন না কি বিদেশে পলাতক রয়েছেন সে বিষয়ে কিছুই বলা সম্ভব হচ্ছে না। আমরা যাচাই-বাছাই করে দেখছি।

গুলশান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আবুল হাসান বলেন, আদালতের জারি করা গ্রেফতারি পরোয়ানা পেয়ে গতকাল গুলশান থানা পুলিশ অভিযান পরিচালনা করে। তবে তাদের কাউকে পাওয়া যায়নি। আমরা পলাতক আসামিদের গ্রেফতারে চেষ্টা চালাচ্ছি।

তিনি বলেন, গ্রুপের চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন সপরিবারে দেশ ত্যাগ করেছেন কি না সে বিষয়ে সুনির্দিষ্ট কোনো তথ্য আমরা এখনও পাইনি।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

error: Content is protected !!