হোম অফিস:বিছানায় বসে বিপদ ডেকে আনছেন না তো!

বৈশ্বিক মহামারি করোনা পরিস্থিতির কারণে আরোপ করা লকডাউনে ঘর থেকেই অফিসের কাজ শুরু হয়। লকডাউন উঠে গেলেও এখনো অনেক কোম্পানির অফিস চলছে এই নিয়মেই।

হোম অফিস করতে গিয়ে দিনভর ল্যাপটপে মুখ গুঁজে বসে থাকছেন আপনাকে। অনেকে খাটে বা বিছানায় বসেই সারছেন কাজ। আর এতে সারাদিন ঘাড়ে-কোমরে ব্যথা লেগেই আছে।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস জানায়, খাটে বা বিছানায় বসে ল্যাপটপ নিয়ে কাজ করলে শরীরের ওপর নেতিবাচক প্রভাব পড়তে বাধ্য। শুধু ল্যাপটপ না, খাটে বা বিছানায় বসে বই পড়তেও না করেন চিকিৎসকেরা।

বিছানায় বসে কাজ করলে পেছনে হেলান দেওয়ার মতো কিছু থাকে না, আপনি বালিশ বা নরম কিছুতে হেলান দিয়ে কাজ চালিয়ে নিতে পারেন, কিন্তু শরীরের জন্য তা মোটেও কার্যকর নয়।

আর বিছানায় বসে কাজ করতে করতে নিজের অজান্তেই সামনের দিকে ঝুঁকে পড়েন আপনি, এটা স্পাইন বা মেরুদণ্ডের জন্য ভালো না। প্রথম দিকে শুধু ঘাড় ব্যথা, কোমর ব্যথা হবে, কিন্তু পরে কিন্তু স্লিপড ডিস্কও হতে পারে।

এমনকি ঘুমেরও ব্যাঘাত ঘটতে পারে। কারণ বিছানায় কাজ করলে ঘুম আর কাজের সময়ের মধ্যে কোনো ফারাক থাকে না। মস্তিষ্ক আমাদের দিয়ে যা করায় আমরা তাই করি।

বিছানার সঙ্গে ঘুমের সরাসরি যোগ থাকে, ফলে বিছানায় বসে কাজ করলে ঘুম এবং কাজ দুয়েরই ব্যঘাত ঘটে।

বাড়িতে টেবিল চেয়ারের ব্যবস্থা না থাকলে কী করবেন? এতে যদি বিছানায় বসে কাজ করতে হয়, তাহলে পেছনে যথাযথ ব্যাক সাপোর্ট রাখবেন। ল্যাপটপ বিছানা থেকে উঠিয়ে আপনার চোখের সমতলে আনতে হবে, যাতে আপনাকে ঝুঁকে পড়ে কাজ না করতে হয়। সোজা হয়ে বসে কাজ করবেন। মাথা ঘাড় আর মেরুদণ্ড যেন একই সমতলে থাকে।

একই ভঙ্গিতে বেশিক্ষণ টানা বসে থাকবেন না। কাজের মাঝে ছোট বিরতি নিয়ে মাঝেমাঝেই মিনিট পাঁচেকের জন্য হাঁটেন। আর সকাল সন্ধ্যা আধঘণ্টার মতো হালকা শরীরচর্চা করুন, এতে উপকার পাবেন শারীরিকভাবে।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

error: Content is protected !!