সৌদি এয়ারলাইন্সের টিকিট কিনতে ভোগান্তি, চাকরি হারানোর শংকায় প্রবাসীরা

গত দুই দিন ধরে রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলের পাশে সৌদি এয়ারলাইন্সের অফিসে ভিড় করেছেন টিকিট প্রত্যাশীরা। অনিশ্চয়তা নিয়ে সোমবার (২১ সেপ্টেম্বর) সকাল থেকেই টিকিটের অপেক্ষায় আছেন হাজারো মানুষ।
বেশির ভাগেরই এই মাসে শেষ হচ্ছে ভিসার মেয়াদ, অনেকের আবার সময়মতো সৌদি না যেতে পারলে চাকরিই চলে যাবে। তাই নিরুপায় হয়েই টিকিটের জন্য হাজির হয়েছেন তারা।
অভিযোগ রয়েছে সমস্যা সমাধানে মিলছে না, ঢাকায় সৌদি দূতাবাসের সহযোগিতা। তাই সরকারের সহযোগিতা চেয়েছেন ভুক্তভোগীরা।
গত ১৭ সেপ্টেম্বর, শর্তসাপেক্ষে বাণিজ্যিক ফ্লাইট পরিচালনার ঘোষণা দিলেও পরে, শুধু সৌদি এয়ারলাইন্স ছাড়া বাকিদের ফ্লাইটের অনুমতি দেয়নি সৌদি সিভিল এভিয়েশন কর্তৃপক্ষ।

বিমানকে অনুমতি না দেয়ায়, সৌদি আরবের সাথে সব বাণিজ্যিক ফ্লাইট বাতিল করা হবে। এ সিদ্ধান্ত, পররাষ্ট্র মন্ত্রণায়ের মাধ্যমে জানানো হবে সৌদি সরকারকে। বেসামরিক বিমান চলাচল মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব। তবে, এমন অনিশ্চয়তার ভেতরেও সৌদি এয়ারলাইন্সের টিকিট কিনতে ভিড় করেছেন অনেকে।
অনেকের এই মাসে ভিসার মেয়াদ শেষ; অনেকের আবার সময়মতো সৌদি না যেতে পারলে, চাকরিই চলে যাবে। এমন বাস্তবতায় সকাল থেকে রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলের পাশে সৌদি এয়ারলাইন্সের অফিসে ভিড় টিকিট প্রত্যাশীদের।

টিকিট পাবেন; কি পাবেন না, এমন শঙ্কার মধ্যে, আবারও অনিশ্চয়তায় দুই দেশের ফ্লাইট চালুর বিষয়টি। বেসামরিক বিমান চলাচল মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মহিবুল হক জানান, বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সকে অনুমতি না দেয়ায়; সৌদি আরবের সাথে বাণিজ্যিক সব ফ্লাইট বাতিল করা হবে।
তবে, চালু থাকবে, ঢাকা-সৌদি চার্টার্ড ফ্লাইট। এছাড়া, করোনার নমুনা জমার ৪৮ ঘন্টার মধ্যে সৌদি ভ্রমণের যে শর্ত দেয়া আছে; শুধু ঢাকা থেকে পরিচালিত ফ্লাইটে সেটি পূরণ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

সৌদি এয়ারলাইন্সের এক কর্মকর্তা জানান, বাংলাদেশ সরকারের সিদ্ধান্তের কোনো চিঠি পাননি তারা। পেলে, বিক্রিত টিকিটের রিশিডিউলিং করা হবে।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

error: Content is protected !!