অর্ধেকেরও কম পরিবার সেনসাসে অংশ নিল

সেনসাস ২০২০এ অর্ধেকেরও কম পেটারসনবাসীর অংশগ্রহণ

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের আদমশুমারি ব্যুরোর তথ্য অনুসারে পেটারসনের অর্ধেকেরও কম  পরিবার সম্পূর্ণ আদমশুমারি জরিপ জমা দিয়েছে।

পরিসংখ্যানে  দেখা যায় যে,  পেটারসনের  মাত্র ৪৬ দশমিক ৪ শতাংশ পরিবার ইন্টারনেট, মেল এবং ফোনের মাধ্যমে সেনসাস ২০২০ এর  জরিপে অংশ নিয়েছে ।   কাছাকাছি প্যাসেইক সিটিতে  ৫৩দশমিক ৮ শতাংশ এবং ক্লিফটনে ৬৫দশমিক ৩ শতাংশ পরিবার জরিপে অংশ নিয়েছে।

প্যাসেইক কাউন্টিতে সর্বমোট ৬১ দশমিক ২ শতাংশ পরিবার সেনসাস ২০২০তে উত্তর জমা দিয়েছে। আর নিউ জার্সিতে গড়ে এ সংখ্যা ৬২দশমিক ৭ শতাংশ। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের আদমশুমারি ব্যুরো অনুসারে আমেরিকার মোট জরিপে অংশগ্রহণকারী পরিবারের গড় ৬০ দশমিক ৬  শতাংশ।

প্রতি দশ বছরে একবার, ফেডারেল সরকার যুক্তরাষ্ট্রে প্রতিটি ব্যক্তির জনসংখ্যা গণনার আদম শুমারি  পরিচালনা করে। এই জনগণনার ফলাফলগুলি জনসাধারণের পরিষেবার জন্য তহবিল মনোনীত করতে ব্যবহৃত হয়। প্রকৃতপক্ষে, নিউ জার্সির শিশুদের পক্ষে (এসিএনজে), নিউ জার্সির জন্য ফেডারেল তহবিলের প্রায ২৩  বিলিয়ন ডলারের  মেডিকেইড, হাসপাতালের তহবিল, টাইটেল ১ স্কুল তহবিল, চাইল্ড কেয়ার, শিক্ষার্থী লোন, মহাসড়ক স্কুল মিল প্রোগ্রাম  এবং পরিবহন তহবিলের মতো কর্মসূচির জন্য আদমশুমারি গণনার উপর নির্ভরশীল।

তদুপরি, এই গুরুত্বপূর্ণ কর্মসূচিগুলির পাশাপাশি, আবাসন, বিদ্যালয়, ব্যবসা এবং আশেপাশের সামগ্রিক উন্নতির জন্য নিজস্ব পরিকল্পনার জন্য পৌরসভার পক্ষে আদমশুমারির তথ্য মূল্যবান। আদমশুমারির ফলাফলগুলিও নির্ধারণ করে যে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধি সভায় প্রতিটি রাজ্যকে কতটি আসন বরাদ্দ করা হয়। দুর্ভাগ্যক্রমে, নিউ জার্সি সর্বশেষ তিনটি আদমশুমারিতে তিনটি কংগ্রেসীয় আসন হারিয়েছে এবং পেটারসনকে ২০১২ সালে আসনটি ধরে রাখতে বেগ পেতে হয়েছিল।

উল্লেখ্য, ২০১০ সালের আদম শুমারিতে পেটারসনের ৬০ শতাংশ পরিবার অংশগ্রহণ করেছিল। এবং সে হিসেবে পেটারসনের জনসংখ্যা ছিল ১লাখ সাতচল্লিশ হাজার একশ নিরানব্বই জন। যা বাস্তবে আরো অনেক বেশি বলে ধারণা করা হয়।

সেনসাস ২০১০ এর জরিপে বাস্তবের চেয়ে তুলনামূলক কম পরিবার অংশ নেওয়ায় এ বছর বেশি মানুষকে গণনার আওতায় আনার জন্য সিটি মেয়র আন্দ্রে সায়াহ ব্যাপক প্রচার এবং বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেন। কিন্তু কোভিড-১৯ এর কারণে তাদের সব আয়োজন ব্যর্থ হয়েছে বলা যায়।

জানা যায়, সেনসাসে গণনা জমা দেওয়ার সময় ৩১শে অক্টোবর পর্যন্ত বর্ধিত করা হয়েছে। আপনি সেনসাসে গণনা জমা না দিয়ে থাকলে চাইলে অনলাইনে তা আজই করে নিতে পারেন।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

error: Content is protected !!