November 29, 2020

মাই পেটারসন. লাইফ

ভয়েস অফ দ্যা কমিউনিটি

লেবাননে বিস্ফোরণের এক মাস পর ধ্বংসস্তূপে প্রাণের সন্ধান

গত ৪ আগস্ট প্রচণ্ড বিস্ফোরণে কেঁপে উঠেছিল লেবাননের বৈরুত বন্দর।এরই মধ্যে বৈরুতে ভয়াবহ বিস্ফোরণের এক মাস কেটে গেছে। দেশটির রাজনৈতিক ও সামাজিক পটও পরিবর্তন হয়েছে। ৫ আগস্ট থেকে ধ্বংসস্তূপে চলছে উদ্ধার কাজ। সেই থেকে চলমান আছে এখনও। বিভিন্ন দেশের উদ্ধারকারী দল অত্যাধুনিক যন্ত্রপাতি নিয়ে এসেছেন ধ্বংসাবশেষে উদ্ধার কাজ পরিচালনার জন্য।
তেমনই একটি চিলির উদ্ধারকর্মীদের দল। বৃহস্পতিবার তারা বলেছেন, ধ্বংসাবেশেষের নিচে প্রাণের সন্ধান পেয়েছেন তারা।

চিলির উদ্ধারকারী দলের একজন সদস্য আল জাজিরাকে জানান, অত্যাধুনিক স্ক্যানিং মেশিন ব্যবহার করে তারা ধ্বসে পড়া একটি ভবনের নিচে কোনো প্রাণের শ্বাসের সন্ধান পেয়েছেন। এটি সম্ভবত কোনো শিশুর শ্বাস।

ওই সদস্য আরও বলছেন, তাদের ওই যন্ত্র দিয়ে ধ্বংসস্তূপের নিচে কেউ আটকে থাকলে তার হার্টের শব্দ ধরা পড়ে। প্রাথমিকভাবে প্রাণের সন্ধান পেয়েই আশপাশের সকলকে মোবাইল সুইচ অফ করতে বলা হয়। সকলকে শান্ত হতে বলা হয়। এর পর ধ্বংসস্তূপের আরও কাছে গিয়ে অনুসন্ধান চালানো হয়। তবে শুক্রবার সকাল পর্যন্ত কাউকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এক মাস ধরে কেউ আটকে থাকলে বেঁচে থাকা মুশকিল। কিন্তু অনেক ক্ষেত্রে মিরাকলও ঘটে। এ ক্ষেত্রেও তেমনই কিছু ঘটেছে কি না তা দেখতে হবে।গত আগস্ট ৪ আগস্ট ভয়াবহ বৈরুতে বিস্ফোরণে ২০০ এর মতো মানুষের মৃত্যু হয়। আহত হয় ৫ হাজারের অধিক মানুষ। অনেকে নিঁখোজ হয়ে যান।

উদ্ধারকারীরা মনে করেন, এক মাস ধরে কেউ ধ্বংসস্তূপের নিচে আটকে থাকলে বেঁচে থাকাটা বিরল ঘটনা। তবে অতীতে যে এরকম কিছু ঘটেনি তা নয়। এ ক্ষেত্রেও তেমনই অলৌকিক কিছু ঘটেছে কি না, তা দেখত চাইছেন উদ্ধারকারীরা। তবে যেভাবে ধ্বংসাবশেষ পড়ে আছে, তাতে দ্রুত কাজ করা কঠিন। উদ্ধারকারীদের খুব সাবধানে কাজ করতে হচ্ছে ।

error: Content is protected !!