December 4, 2020

মাই পেটারসন. লাইফ

ভয়েস অফ দ্যা কমিউনিটি

‘লাথি মেরে সুয়ারেসকে বের করে দেওয়ায়’ বার্সার ওপর ক্ষেপেছেন মেসি

আবারও বার্সেলোনার ওপর হতাশা প্রকাশ করেছেন লিওনেল মেসি। এবার সতীর্থ লুইস সুয়ারেসের ক্যাম্প ন্যু থেকে নিরুত্তাপ বিদায় আহত করেছে আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ডকে।

বার্সেলোনার সঙ্গে লুইস সুয়ারেজের ছয় বছরের সম্পর্ক ছিন্নই হয়ে গেছে। বার্সার নতুন কোচ রোনাল্ড কোম্যান এসেই জানিয়ে দিয়েছিলেন, তার পরিকল্পনায় সুয়ারেজের জায়গা নেই। তখনই বুঝা যাচ্ছিল, ক্লাব ছাড়তে হবে উরুগুয়ান তারকাকে। কিন্তু যে পন্থায় তাকে ‘বের করে দেওয়া’ হলো সেটা মানতে পারছেন না লিওনেল মেসি।

বিদায়ী সংবাদ সম্মেলনে বারবার কাঁদতে দেখা গেছে সুয়ারেজকে। কান্না বারবার তার বক্তবকে থামিয়ে দিচ্ছিল। একদিন আগে অনুশীলনে সতীর্থদের কাছ থেকে বিদায় নিতে গিয়েও কেঁদেছেন উরুগুয়ান তারকা। গাড়ি করে ফিরতে ফিরতেও কাঁদতে দেখা গেছে তাকে। হয়তো কদিনের তিক্ততাই এতো আবেগী করে তুলেছিল!

মেসি-সুয়ারেজ-নেইমারের ত্রিফলাকে একটা সময় বিশ্বের সেরা আক্রমনভাগ ভাবা হতো। নেইমার চলে যাওয়াতে ত্রিফলা ভেঙেছিল ঠিকই কিন্তু মেসির পাশে সুয়ারেজ দুর্বারই ছিলেন। সব মিলিয়ে ২৮৩ ম্যাচে বার্সেলোনার হয়ে করেছেন ১৯৮ গোল। ক্লাব ইতিহাসের তৃতীয় সর্বোচ্চ গোলদাতা তিনি। একটি চ্যাম্পিয়নস লিগ, চারটি লা লিগাসহ কাতালান ক্লাবটির হয়ে শিরোপা জিতেছেন মোট ১২টি। অথচ বিদায় বেলায় কোনো সম্মানই দেওয়া হলো না সুয়ারেজকে!

নতুন মৌসুমে অনুশীলনের সুযোগ দেওয়া হয়নি উরুগুয়ান তারকাকে। চুক্তির দেনা-পাওনা নিয়েও ঝামেলা বাঁধিয়েছিলেন বার্সেলোনা সভাপতি জোসেফ মারিয়া বার্তেমেউ। তারপর বার্সার পক্ষ থেকে সরাসরি বলে দেওয়া হয়েছিল রিয়াল মাদ্রিদ, প্যারিস সেন্ট জার্মেই, ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ও ম্যানচেস্টার সিটিতে যেতে পারবেন না সুয়ারেজ। পরে সুয়ারেজ অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের সঙ্গে যোগাযোগ করলে বার্সা সভাপতি সেখানেও ‘না’ বলার চেষ্টা করেন। শেষ পর্যন্ত সুয়ারেজের আইনজীবীর হুমকিতে আর তোড়জোড় করেননি বার্সা সভাপতি। শেষ পর্যন্ত অ্যাটলেটিকোতেই যাচ্ছেন সুয়ারেজ।

প্রিয় বন্ধুর এমন বিশাদের বিদায় একেবারেই মানতে পারছেন না মেসি। আজ ইনস্টাগ্রামে একটা পোস্ট করেছেন আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড। যেখানে সুয়ারেজকে বিদায় করার পন্থা নিয়ে কড়া ভাষায় সমালোচনা করেছেন মেসি।

লিখেছেন, ‘আমি বেশ কয়েক দিন ধরেই আভাস পাচ্ছিলাম এমন কিছু হতে যাচ্ছে। তবু আজ যখন লকার রুমে ঢুকলাম ব্যাপারটার গুরুত্ব পুরোপুরি টের পেলাম। তোমার সঙ্গে প্রতিদিন কাটাতে না পারা কী কঠিনই না হবে! সেটা মাঠে যেমন, মাঠের বাইরেও। তোমার অভাব খুব ভালোভাবে টের পাব আমি। কতগুলো বছর, কত শত মাতে (দক্ষিণ আমেরিকান পানীয়), কত লাঞ্চ, ডিনারের স্মৃতি…প্রতিটি দিন একসঙ্গে কাটানো সময়ের অনেক স্মৃতি যা ভোলা যাবে না কখনো। তোমাকে অন্য কোনো জার্সিতে দেখাটা খুব অদ্ভুত ব্যাপার হবে, আর তোমার মুখোমুখি হওয়ার ব্যাপারটা তো আরও বেশি।’

মেসি লিখেছেন, ‘ক্লাবের ইতিহাসের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড় হিসেবেই বিদায়টা প্রাপ্য ছিল তোমার, ব্যক্তিগত ও দলীয় শিরোপা জয়ের আনন্দের মধ্যে। যেভাবে তোমাকে ক্লাব থেকে বের করে দিল ওরা, এটা তোমার প্রাপ্য ছিল না কোনোভাবেই। কিন্তু সত্যিটা হলো, সাম্প্রতিক সময়ে (ক্লাবে) যা হচ্ছে, তাতে আমি কোনো কিছুতেই আর অবাক হই না। নতুন যাত্রায় তোমার জন্য শুভকামনা। তোমাকে খুব ভালোবাসি, অনেক অনেক ভালোবাসি। খুব শিগগিরই দেখা হবে, বন্ধু।’

বার্সার ইতিহাসের সর্বোচ্চ গোলদাতাদের তালিকায় তৃতীয় স্থানে আছেন উরুগুইয়ান তারকা। কিন্তু ক্লাব এবং কোচ রোনাল্ড কোম্যান উভয়ের পরিকল্পনায় নেই সুয়ারেস। যার জন্য ফ্রি’তে অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদে যোগ দিয়েছেন ৩৩ বছর বয়সী ফরোয়ার্ড। তবে পরে সেই চুক্তির অঙ্ক বাড়তে পারে ৬ মিলিয়ন ইউরোতে।

error: Content is protected !!