রাজধানীর ১০৪ এলাকায় ছড়িয়েছে করোনা

রাজধানীতে করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) প্রাদুর্ভাব বেড়েই চলেছে। সেই সঙ্গে বেড়ে চলছে মৃতের সংখ্যাও। ইতিমধ্যে ঢাকার ১০৪টি এলাকায় এ ভাইরাস ছড়িয়েছে। সারাদেশে মোট শনাক্তের সংখ্যার ১৫৭২ জন। সেখানে ঢাকায় মোট শনাক্ত এখন ৬০৮।

বৃহস্পতিবার (১৬ এপ্রিল) রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর) এই হালনাগাদ তথ্য দিয়েছে।

আইইডিসিআর-এর দেয়া তথ্য দেখা গেছে, নগরীতে সবচেয়ে বেশি শনাক্তের সংখ্যা এখন ওয়ারিতে। এরপরই রয়েছে যাত্রাবাড়ী, মোহাম্মদপুর, লালবাগে, টোলারবাগ, ধানমন্ডি, বাসাবো, তেজগাঁও, মহাখালী, মিরপুর-১১ ও মিরপুর-১২।

রাজধানীর আক্রান্ত এলাকাগুলো: আদাবর (৫), আগারগাঁও (২), আরমানিটোলা (১), আশকোনা (১), আজিমপুর (১), বাবু বাজার (১১), বাড্ডা (৮), বেইলি রোড (৩), বনানী (৮), বংশাল (৯), বানিয়ান নগর (১), বাসাবো (১৭), বসুন্ধরা (৫), বেগুনবাড়ি (১), বেগম বাজার (১), বেরাইদাহ (১), বকশি বাজার (১), বসিলা (১), বুয়েট এলাকা (১), সেন্ট্রাল রোড (১), চাঁনখারপুল (৫), চকবাজার (৯), ঢাকেশ্বরী মন্দির (১), ধানমন্ডি (১৮), ধোলাইখাল (১), দয়াগঞ্জ (১), ইস্কাটন (২), ফরিদাবাদ (১), গেন্ডারিয়া (১৪), গোপিবাগ (৩), গ্রিনরোড (১০), গুলিস্তান (২), হাতিরঝিল (১), হাজারীবাগ (১১), ইসলামপুর (২), জেলগেইট (২) ঝিগাতলা (৫) জুরাইন (১), কল্যানপুর (১), কামরাঙ্গীরচর (৩), কাজী পাড়া (২), কারওয়ান বাজার (১), কচুক্ষেত (১), কদমতলী (৩), কুড়িল (১), লালবাগ (২১), লক্ষ্মীবাজার (৪), মালিবাগ (৪), মানিকদি (১), মাতুয়াইল (১), মীরহাজারী বাগ (২), মিরপুর-১-এ (৮), মিরপুর-৬ (৩), মিরপুর-১০ (৬) মিরপুর-১১-এ (১১), মিরপুর-১৩ (২), মিরপুর-১৪ (৫), মিঠফোর্ড (২), মগবাজার (১০), মহাখালী (১২), মোহাম্মদপুর (২২), মতিঝিল (১), মুগদা (২), নারিন্দা (৩), নাখালপাড়া (৫), নিকুঞ্জ (১), পীরেরবাগ (২), পুরানাপল্টন (২), রাজারবাগ (৮), রামপুর (৩), রমনা (১), রায়েরবাগ (১), সবুজবাগ (২), সায়েদবাদ (১), সায়েন্সল্যাব (১), শাহ আলী বাগ (৪), শাখারীবাজার (৬), শান্তিনগর (১) ও শ্যামপুর (১)।

বৃহস্পতিবার করোনাভাইরাস পরিস্থিতি নিয়ে নিয়মিত অনলাইন ব্রিফিংয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় (বুধবাবার সকাল ৮টা থেকে বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা পর্যন্ত) ২ হাজার ১৯ জনের নমুনা পরীক্ষা করে নতুন করে ৩৪১ জনের দেহে করোনাভাইরাস বা কোভিড-১৯ এর সংক্রমণ পাওয়া গেছে। এতে দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ১ হাজার ৫৭২ জনে।

তিনি আরও জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত আরও ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এটা একদিনে দেশে সর্বোচ্চ মৃত্যু। এতে দেশে এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬০ জনে।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

error: Content is protected !!