যুক্তরাষ্ট্রে ৩ মাসে ৭০ হাজার প্রাণ বাঁচবে মাস্ক পরলে: গবেষণা

মহামারি করোনাভাইরাসে সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ ও মৃত্যু ঘটেছে যুক্তরাষ্ট্রে। দেশটিতে রোববার (২৩ আগস্ট) পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা ৫৮ লাখ ৪১ হাজার ৪২৮ জন। আর মৃত্যু হয়েছে ১ লাখ ৮০ হাজার ১৭৪ জনের।
করোনার বিস্তার রোধে যদি নতুন করে কোনো পদক্ষেপ বাধ্যতামূলক করা না হয় তাহলে আগামী ডিসেম্বরের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রে কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়ে আরও এক লাখ ৩৪ হাজার মানুষের মৃত্যু হবে। এ ছাড়া যদি বাধ্যতামূলক কোনো পদক্ষেপ শিথিল করা হয় তাহলে এই সংখ্যাটা হবে তার চেয়েও বেশি।

যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটন বিশ্ববিদ্যালয়ের ইনস্টিটিউট ফর হেলথ ম্যাট্রিক্স অ্যান্ড ইভালুয়েশনের গবেষকরা এমন পূর্বাভাস দিয়ে সতর্ক করেছে। ইনস্টিটিউটের প্রধান বলেছেন, এই সময়ের মধ্যে যদি আরও বেশি আমেরিকান মাস্ক ব্যবহার করতে শুরু করেন তাহলে এর মধ্যে ৭০ হাজার মানুষের প্রাণ বাঁচানো সম্ভব হবে।

ওয়াশিংটন বিশ্ববিদ্যালয়ের ইনস্টিটিউট ফর হেলথ ম্যাট্রিক্স অ্যান্ড ইভালুয়েশনের প্রধান ডা. ক্রিস মুরে দেশটির সংবাদমাধ্যম সিএনএনকে বলেছেন, এটা নির্ভর করছে আমাদের নেতারা কি করবেন তার ওপর। আর এটা নির্ভর করছে ব্যক্তিগতভাবে কোনো নেতা কিংবা সরকারিভাবে প্রশাসন; দুটোর ক্ষেত্রেই।

সিএনএন জন হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের বরাতে জানাচ্ছে, মহামারি নভেল করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব শুরুর পর এ পর্যস্ত যুক্তরাষ্ট্রে কোভিড-১৯ আক্রান্ত এক লাখ ৭৬ হাজারের বেশি মানুষ প্রাণ হারিয়েছেন। এ ছাড়া দেশের ৫৬ লাখ মানুষের দেহে ভাইরাসটির সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। দিন দিন এ সংখ্যা বাড়ছেই।

ওয়াশিংটন বিশ্ববিদ্যালয়ের আইএইচএমই পূর্বাভাসে দিচ্ছে, সংক্রমণ রোধে সরকার ও মানুষের অবস্থান না পাল্টালে সেপ্টেম্বরে ভাইরাসটিতে সংক্রমিত হয়ে মৃতের সংখ্যা কিছুটা কমলেও বসন্তে তা আরও বাড়বে। আর ১ ডিসেম্বরের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় মৃতের মোট সংখ্যা গিয়ে দাঁড়াতে পারে ৩ লাখ ১০ হাজারে। যুক্তরাষ্ট্রের পর করোনায় সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশ হচ্ছে ব্রাজিল। আক্রান্ত ও মৃত্যু উভয় বিবেচনায় দ্বিতীয় স্থানে থাকা লাতিন আমেরিকার দেশটিতে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছে ৩৫ লাখ ৮২ হাজার ৬৯৮ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ১ লাখ ১৪ হাজার ২৭৭ জনের।

বিশ্বে আক্রান্ত বিবেচনায় তৃতীয় স্থানে থাকা ভারত মৃত্যু বিবেচনায় উঠে এসেছে চতুর্থ স্থানে। এ পর্যন্ত দেশটিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৩০ লাখ ৪৩ হাজার ৪৩৬ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ৫৬ হাজার ৮৪৬ জনের।

মৃত্যু বিবেচনায় তৃতীয় স্থানে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিবেশী মেক্সিকো, তবে আক্রান্ত বিবেচনায় দেশটির অবস্থান সাত নম্বরে। মেক্সিকোতে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ৫ লাখ ৫৬ হাজার ২১৬ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ৬০ হাজার ২৫৪ জনের।

ইউরোপের দেশ যুক্তরাজ্য মৃত্যু বিবেচনায় রয়েছে পঞ্চম স্থানে, তবে আক্রান্তের দিক থেকে দেশটির অবস্থান ১৩তম। এখন পর্যন্ত দেশটিতে আক্রান্তের সংখ্যা ৩ লাখ ২৪ হাজার ৬০১ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ৪১ হাজার ৪২৩ জনের।

আক্রান্তের দিক থেকে চতুর্থ অবস্থানে আছে রাশিয়া। দেশটিতে আক্রান্ত ৯ লাখ ৫১ হাজার ৮৯৭ জন। আর মৃতের সংখ্যা ১৬ হাজার ৩১০ জনের।

সুস্থতার দিক থেকেও প্রথম অবস্থানে আছে যুক্তরাষ্ট্র (৩১ লাখ ৪৮ হাজার ৮০ জন), দ্বিতীয় অবস্থানে আছে ব্রাজিল (২৬ লাখ ৯ হাজার ৬৩৮ জন) এবং তৃতীয় অবস্থানে আছে ভারত (২২ লাখ ৭৯ হাজার ৯০০ জন)।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

error: Content is protected !!