যুক্তরাষ্ট্রে রোগীদের ভেন্টিলেটরে নিয়ে মেরে ফেলা হচ্ছে

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের এক নার্স সোশ্যাল মিডিয়ায় ভিডিও বার্তায় বিস্ফোরক মন্তব্য করেছেন। নিউইয়র্কের হাসপাতালগুলোতে করোনা আক্রান্ত রোগীদের ভেন্টিলেটরে রাখার মাধ্যমে খুন করা হচ্ছে বলে দাবি ওই মার্কিনি নার্সের।

সম্প্রতি ‘সারা এনপি’ নামের একটি ফেসবুক আইডি থেকে এক ভিডিও বার্তায় এমনই বিস্ফোরক দাবি করেছেন ওই নার্স। তবে এই নারী নিউইয়র্কের কোন হাসপাতালে কাজ করছেন সে সম্পর্কে কিছু জানা যায়নি।

এক বিশ্বস্ত বন্ধু- যিনিও একজন নার্স, তার সূত্রে ওই নারী ভিডিওতে দাবি করেন, এটা যেন একটা হরোর মুভি। রোগের কারণে নয় তাদেরকে যেভাবে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে তাতে করেই প্রাণ হারাচ্ছেন অসংখ্য রোগী। এমনই খবর প্রকাশ করেছে ডেইলি মেইল।

ওই নার্স জানান, ‘হাসপাতালে নেয়ার পর রোগীর আত্মীয় ও স্বজনদের এটা নিশ্চিত করতে হবে যেন, হাসপাতালে নেয়ার সঙ্গে সঙ্গেই তাদের রোগীকে কৃত্রিমভাবে শ্বাস-প্রশ্বাস (ভেন্টিলেটর) নেয়ার ব্যবস্থা করে না দেয়া হয়।’

বন্ধুর দেয়া তথ্যানুযায়ী তিনি আরও বলেন, ‘আমি এখানে তার হয়ে কথা বলছি। আমি আপনাদেরকে এখন সেটাই বলব যেটা তিনি আমাকে বলেছেন। তিনি চান হাসপাতালের ভেতরকার বর্তমান এই মর্মান্তিক পরিস্থিতি জনসম্মুখে আসুক। মানুষ হাসপাতালের ভেতরের প্রকৃত অবস্থা সম্পর্কে জানুক।’

তার ভাষায়, ‘মানুষ অসুস্থ হচ্ছে। কিন্তু হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ গুরুতর অসুস্থ রোগীদের সেবা দিচ্ছে না। তারা এসব রোগীকে সাহায্য করার পরিবর্তে তাদেরকে মেরে ফেলছেন। আর তাতে কেউ ভ্রুক্ষেপও করছেন না। তার জীবনে সে এমন করে কোনো রোগীকে অবহেলার স্বীকার হতে দেখেনি।’

ওই নার্স এই পদ্ধতিতে পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড হিসেবে অভিহিত করে আরও জানান, রোগীদেরকে মর্মান্তিকভাবে পচেগলে প্রাণ হারাতে হচ্ছে। মানুষগুলোকে এভাবে মেরে ফেলা হচ্ছে কিন্তু কেউ কিছুই মনে করছে না।’

উল্লেখ্য, যুক্তরাষ্ট্রে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ১০ লাখ ছাড়িয়েছে। এরমধ্যে মৃত্যু হয়েছে ৫৭ হাজারেরও বেশি মানুষের।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

error: Content is protected !!