যুক্তরাষ্ট্রে তিন অঙ্গরাজ্যে গেলেই আইসোলেশন, অন্যথায় জরিমানা

নিউইয়র্ক প্রতিনিধি:

মহামারী করোনায় বিপর্যস্ত যুক্তরাষ্ট্রের সব রাজ্য। এ ভাইরাসে লাখো মানুষের মৃত্যুতে নাজুক হওয়া যুক্তরাষ্ট্রে করোনা পরিস্থিতি আবার ভিন্ন মোড় নিয়েছে। কয়েক দিন ধরে আবার সংক্রমণের হার বাড়ছে। দক্ষিণ ও পশ্চিমের কয়েকটি রাজ্য রেকর্ডসংখ্যক সংক্রমণের খবর পাওয়া গেছে। মহামারি রোধে আগামী সপ্তাহ খুবই গুরুত্বপূর্ণ বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা। 

এ অবস্থায় যুক্তরাষ্ট্রের যেসব অঙ্গরাজ্যে এখন ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব বেশি, সেসব অঙ্গরাজ্য থেকে নিউইয়র্ক, নিউজার্সি ও কানেটিকাট অঙ্গরাজ্যে এলে ১৪ দিনের স্বেচ্ছা আইসোলেশনে থাকতে হবে। একই সঙ্গে ওই তিন অঙ্গরাজ্যে এই কোয়ারেন্টিন বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। কেউ নিয়ম না মানলে তাকে বড় অঙ্কের জরিমানা গুনতে হবে। 

বুধবার তিন অঙ্গরাজ্যে এ সংক্রান্ত নির্দেশ জারি করা হয়েছে।বিবিসি অনলাইনের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

কিছু অঙ্গরাজ্যে করোনার সংক্রমণ উদ্বেগজনকভাবে বাড়ছে উল্লেখ করে গত মঙ্গলবার আইনপ্রণেতাদের উদ্দেশে যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ অ্যান্টনি এস ফাউসি নাগরিকদের সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে বলেছেন। তিনি বলেন, ‘পরিকল্পনা এ হচ্ছে, ভিড়ের মধ্যে যাবেন না। পরিকল্পনা বি, ভিড়ের মধ্যে গেলে মাস্ক পরার বিষয়টি নিশ্চিত করে নিন’।

নিউইয়র্ক অঙ্গরাজ্যের গভর্নর অ্যান্ড্রু কুওমো সাংবাদিকদের বলেন, বর্তমানে সংক্রমণ বেশি আলাবামা, আরকানসাস, অ্যারিজোনা, ফ্লোরিডা, উত্তর ক্যারোলাইনা, দক্ষিণ ক্যারোলাইনা, টেক্সাস, ওয়াশিংটন ও ইউটায়। এই অঙ্গরাজ্য থেকে মানুষদের ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে। কেই এই নিয়ম ভঙ্গ করলে তাকে ১ হাজার ডলার থেকে শুরু করে সর্বোচ্চ ৫ হাজার ডলার পর্যন্ত জরিমানা গুনতে হবে।

নিউইয়র্কের মতো নিউজার্সির গর্ভনরও এতে সায় দিয়েছেন। ফিল মারফি বলেন, এই তিনটি অঙ্গরাজ্যের মানুষ ‘নরক’ উতরে এসেছে। তারা ভাইরাসের ‘আরেক দফা’ সংক্রমণ চায় না।  ‘এখন আমাদের যা করা দরকার, তা হলো আমাদের লোকজনকে ভাইরাসের আরেক দফা তরঙ্গ থেকে রক্ষা করা।

এদিকে ওয়াশিংটন ইউনিভার্সিটির গবেষকেরা আশঙ্কা করছেন, অক্টোবরের মধ্যে করোনায় নতুন করে ১ লাখ ৮০ হাজার মানুষের মৃত্যু হতে পারে। যদি ৯৫ শতাংশ নাগরিক মাস্ক ব্যবহার করে, তবে এই মৃত্যুর হার কিছুটা কম হতে পারে। তা ১ লাখ ৪৬ হাজারের মতো।

প্রসঙ্গত, যুক্তরাষ্ট্রের প্রায় ২৩ লাখ মানুষ করোনায় আক্রান্ত। এখন পর্যন্ত ১ লাখ ২১ হাজার মানুষ মারা গেছে, যা অন্য যেকোনো দেশের তুলনায় অনেক বেশি। 

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

error: Content is protected !!