মাস্ক পরা নিয়ে সুর পাল্টালেন ট্রাম্প

ডেস্ক রিপোর্ট:

মহামারী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃত্যুতে শীর্ষে যুক্তরাষ্ট্র। শুধু শীর্ষে নয় যুক্তরাষ্ট্রের ধারের কাছেও নেই কোন দেশ। এমন অবস্থাতেও কখনই মাস্ক পরার ওপর নাগরিকদের ওপর কড়াকড়ি আরোপ করেননি মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এমনকি তিনি নিজেও জনসম্মুখে মাস্ক পরতে অনীহা প্রকাশ করেছেন। সভাসমাবেশ করেছেন মাস্ক পরা ছড়াই। এ নিয়ে সমালোচনাও হয়েছে। 

ট্রাম্পের ধারণা করোনা সংক্রমণ কমাতে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করার প্রয়োজন নেই।

বিশ্বের অন্য রাষ্ট্রপ্রধানদের মতো, জনসম্মুখে ট্রাম্পকে মাস্ক পরা অবস্থায় দেখাও যায়নি খুব একটা। তবে এবার মাস্ক পরা নিয়ে নিজের মত পাল্টালেন ট্রাম্প। ফক্স নিউজকে ট্রাম্পে জানিয়েছেন, তিনি মাস্ক পরতে পারেন। জনকোলাহলপূর্ণ স্থানে থাকলে তিনি মাস্ক পরবেন। মাস্ক পরলে তাকে লন রেঞ্জারের (কাল্পনিক চরিত্র) মতো দেখা যাবে বলেও মন্তব্য করেছেন তিনি। এর আগে মাস্ক নিয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার গাইডলাইনকে ক্রমাগত উপেক্ষা করেছেন ট্রাম্প।

তিনি জনসমাগমে মাস্ক পরা থেকে বিরত ছিলেন।ট্রাম্প বলতেন যে কোভিড-১৯ সংক্রমণ ঠেকানোর জন্য মুখে মাস্ক পরার বিষয়টি বাধ্যতামূলক করার প্রয়োজন নেই।

দৃষ্টান্তস্বরূপ ট্রাম্পকে মাস্ক পরতে বলেছিলেন তার দল রিপাবলিকান পার্টির এক জ্যৈষ্ঠ নেতা। এর একদিন পর এমন ঘোষণা দিলেন ট্রাম্প। তিনি আরও জানিয়েছেন, তিনি এখনো বিশ্বাস করেন করোনাভাইরাসের বিলুপ্তি ঘটবেরিপাবলিকান দলের একজন শীর্ষ সদস্য  ট্রাম্পকে আহবান জানান যে তিনি যাতে উদাহরণ সৃষ্টি করার জন্য মাস্ক পরিধান করেন।

তবে তিনি ট্রাম্প আবারো জোর দিয়ে বলেছেন, আমেরিকার সব জায়গায় মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করার প্রয়োজন নেই। আমাদের দেশে অনেক জায়গা আছে যেখানে মানুষজন পরস্পরের কাছ থেকে বেশ দূরে অবস্থান করে। মানুষ যদি মাস্ক পরে ভালো বোধ করে তাহলে তারা পরতে পারে।

ট্রাম্পকে জিজ্ঞেস করা হয়েছিল, করোনাভাইরাস একদিন উধাও হয়ে যাবে – একথা তিনি এখনো বিশ্বাস করেন কিনা?

জবাবে তিনি বলেন, আমি বিশ্বাস করি। অবশ্যই, কোন একটা সময় এটা চলে যাবে।

গত এপ্রিল মাসে আমেরিকার সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল (সিডিসি) জনসমাগমে মাস্ক পরিধান করার সুপারিশ করেছিল। তখন ট্রাম্প বলেছিলেন, তিনি মাস্ক পরবেন না। তখন তিনি বলেন, একজন মানুষ মাস্ক পরবে কিনা সেটি তার ব্যক্তিগত পছন্দের বিষয়। গত মাসে তিনি ওয়াল স্ট্রিট জার্নালকে মি: ট্রাম্প বলেন, তার বিরুদ্ধে রাজনীতির জন্য কিছু মানুষ মাস্ক পরে।

মে মাসে মিশিগানে একটি কারখানা পরিদর্শনে গিয়ে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প সাংবাদিকদের সাথে কথা বলেন। তখন তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ক্যামেরার সামনে আসার আগে তিনি মাস্ক খুলে ফেলেছেন। মাস্ক পরার মাধ্যমে আমি সংবাদমাধ্যমকে আনন্দ দিতে চাই না।

সূত্র: বিবিসি

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

error: Content is protected !!