মালয়েশিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রীর সাথে বৈঠক বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূতের

অবৈধ শ্রমিক, রোহিঙ্গা ইস্যু, দ্বিপাক্ষিক স্বার্থসংশ্লিষ্ট বিষয় নিয়ে মালয়েশিয়ার সিনিয়র মন্ত্রী (প্রতিরক্ষা) দাতুক সেরি ইসমাইল সাবরি ইয়াকুবের সঙ্গে জরুরি বৈঠক করেছেন বাংলাদেশের কমিশনার শহীদুল ইসলাম।

মঙ্গলবার (১৬ জুন) প্রতিরক্ষামন্ত্রীর কার্যালয়ে এই বৈঠক হয়। বৈঠকে অবৈধ শ্রমিক, রোহিঙ্গা ইস্যু, দ্বিপাক্ষিক স্বার্থসংশ্লিষ্ট বিষয় এবং দেশটিতে কর্মরত শ্রমিকদের সমস্যা সমাধান নিয়ে ফলপ্রসূ আলোচনা হয়েছে বলে হাইকমিশনের একটি সূত্রে জানা গেছে।

এ ছাড়া দেশটির সিনিয়র মন্ত্রী তার ফেসবুক পেজে হাইকমিশনারের সঙ্গে বৈঠকের কথা জানিয়ে বলেছেন, দু’দেশের সু-সম্পর্ক দৃঢ় করার লক্ষ্যে সরকার কাজ করে যাচ্ছে।
বৈঠক শেষে প্রতিরক্ষামন্ত্রী দাতুক সেরি ইসমাইল সাবরি ইয়াকুবকে হাইকমিশনারের পক্ষ থেকে উপহার দেয়া হয় এবং বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূতকেও প্রতিরক্ষামন্ত্রী উপহার দেন।

সম্প্রতি মালয়েশিয়ার লঙ্কাউই দ্বীপ থেকে ২৬৯ জন রোহিঙ্গাকে আটক করা হয়। সেখান থেকে উদ্ধার করা হয় এক নারীর মরদেহ। ইসমাইল সাবরি বলেন, আটক করা এসব রোহিঙ্গাকে ভাসান চরে পাঠাতে বাংলাদেশকে অনুরোধ করেছে মালয়েশিয়া।

এক বিবৃতিতে সিনিয়র মন্ত্রী জানান, ২০১৭ সালে মিয়ানমারে সেনা নিপীড়নের শিকার হওয়ার পর লাখ লাখ রোহিঙ্গার গন্তব্য হয়ে ওঠে দেশটি। ওই নিপীড়নের সময় পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের অনেকেই মালয়েশিয়া প্রবেশের চেষ্টা করেছে। তবে করোনাভাইরাস ঠেকাতে এই মুহূর্তে আর কোনও রোহিঙ্গাকে আশ্রয় দেবে না মালয়েশিয়া।

পাশাপাশি রোহিঙ্গাদের তৃতীয় কোনও দেশে আশ্রয় দিতে জাতিসংঘের শরণার্থীবিষয়ক সংস্থা ইউএনএইচসিআর-কে বলা হবে বলেও জানান তিনি।

নভেল করোনাভাইরাস পরবর্তী মালয়েশিযার বেকারত্ব ও অর্থনীতিকে চাঙ্গা করতে সরকার বিভিন্ন পদক্ষেপ হাতে নিয়েছে। পাশাপাশি কর্মী নিয়োগে বিদেশিদের পরিবর্তে স্থানীয়দের অগ্রাধিকার নীতিতেই এগোচ্ছে দেশটির সরকার।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

error: Content is protected !!