December 3, 2020

মাই পেটারসন. লাইফ

ভয়েস অফ দ্যা কমিউনিটি

ভারতে এক দিনে প্রায় ৮৪ হাজার মানুষ করোনায় আক্রান্ত

গত  য়েকদিন ধরেই বিশ্বের অন্য দেশের তুলনায় দৈনিক সংক্রমণে শীর্ষে থাকছে ভারত। যার জেরে মোট আক্রান্তও লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। ভারতে মহামারি করোনাভাইরাসে এক দিনে প্রায় ৮৪ হাজার মানুষ আক্রান্ত হয়েছে, যা সংক্রমণ শুরু হওয়ার পর থেকে সর্বোচ্চ সংখ্যা। অবশ্য এই প্রথম এক দিনে ১১ লাখেরও বেশি টেস্ট করা হয়েছে দেশটিতে।

ভারতের কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রণালয়ের পরিসংখ্যান অনুসারে, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে ৮৩ হাজার ৮৮৩ জন নতুন করে কোভিডে আক্রান্ত হয়েছেন। যার জেরে দেশটিতে মোট আক্রান্ত হলেন ৩৮ লাখ ৫৩ হাজার ৪০৬ জন। ওই সময়ের মধ্যে আমেরিকা ও ব্রাজিলে নতুন আক্রান্তের সংখ্যা যথাক্রমে ৩৯ হাজার ৫৫৩ ও ৪৬ হাজার ৯৩৪ জন। অর্থাৎ আমেরিকা ও ব্রাজিলের তুলনায় ভারতে রোজ বেশি মানুষ নতুন করে করোনা আক্রান্ত হচ্ছেন। এই ধারা গত ১৫-১৬ দিন ধরেই অব্যাহত। আক্রান্তের নিরিখে বিশ্বে প্রথম স্থানে থাকা আমেরিকাতে মোট আক্রান্ত ৬১ লাখ ১৩ হাজার ও দ্বিতীয় স্থানে থাকা ব্রাজিলে ৩৯ লাখ ৯৭ হাজার।

চিকিৎসকদের আশঙ্কা, এভাবে বাড়ছেত থাকলে আগামী কয়েক দিনের মধ্যেই ব্রাজিলকে পিছনে ফেলে সংক্রমণের নিরিখে বিশ্বের দ্বিতীয় স্থানে চলে আসবে ভারত।

আনলক পর্বে ভারতে কড়াকড়ি কমেছে অনেকটাই। আগামী সপ্তাহ থেকে চালু হচ্ছে মেট্রো। মুক্তমঞ্চ, পাবও খুলে যাচ্ছে। এর মধ্যেই দৈনিক সংক্রমণের লাফিয়ে বৃদ্ধি উদ্বেগ তৈরি করছে দেশটির করোনা পরিস্থিতিতে।

আক্রান্তের সংখ্যা যেমন রোজ বাড়ছে, তেমনই প্রচুর মানুষ সুস্থও হয়ে উঠছেন। এই পরিস্থিতির মধ্যে যা কিছুটা হলেও স্বস্তি দিচ্ছে। এখন পর্যন্ত মোট ২৯ লাখ ৭০ হাজার ৪৯২ জন করোনার কবল থেকে মুক্ত হয়েছেন। অর্থাৎ দেশে মোট আক্রান্তের ৭৭ শতাংশ সুস্থ হয়েছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৬৮ হাজার ৫৮৪ জন।

প্রতিদিন যে সংখ্যক মানুষের পরীক্ষা হচ্ছে তার মধ্যে যত শতাংশের কোভিড রিপোর্ট পজিটিভ আসছে সেটাকেই বলা হচ্ছে পজিটিভিটি রেট বা সংক্রমণের হার। গত তিন দিন তা ৭ শতাংশেই বন্দি রয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে সংক্রমণ হার ৭.১৬ শতাংশ। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে পরীক্ষা হয়েছে ১১ লাখ ৭২ হাজার ১৭৯ জনের। যা করোনাকালের মধ্যে সর্বোচ্চ।

মৃত্যুর সংখ্যায় স্পেন, ফ্রান্স, ইটালি, ব্রিটেনের মতো দেশকে ভারত পিছনে ফেলেছিল আগেই। সম্প্রতি মেক্সিকোকে পিছনে ফেলে মৃত্যুর নিরিখে বিশ্বের তৃতীয় স্থানে উঠে এসেছে ভারত। তবে আমেরিকা ও ব্রাজিলের তুলনায় ভারতে মোট মৃত্যু অনেক কম। পাশাপাশি ওই সব দেশগুলোর তুলনায় ভারতে মৃত্যুর হারও অনেকটাই কম।

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রণালয়ের পরিসংখ্যান অনুসারে, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনার জেরে মৃত্যু হয়েছে ১ হাজার ৪৩ জনের। এ নিয়ে দেশে মোট ৬৭ হাজার ৩৭৬ জনের প্রাণ গেল করোনাভাইরাসে। এর মধ্যে মহারাষ্ট্রেই মারা গেছেন ২৫ হাজারের বেশি। দ্বিতীয় স্থানে থাকা তামিলনাডুতে মোট মৃত সাড়ে সাত হাজার ছাড়িেেয়ছে। তৃতীয় স্থানে থাকা কর্নাটকে মৃতের সংখ্যা ৬ হাজার ছুঁইছুঁই। দেশের রাজধানীতে সংখ্যাটা ৪ হাজার ৪৮১। অন্ধ্রপ্রদেশ (৪,১২৫), উত্তরপ্রদেশ (৩,৬১৬), পশ্চিমবঙ্গ (৩,৩৩৯), গুজরাট (৩,০৪৬) মৃত্যু তালিকায় উপরের দিকে রয়েছে। পাঞ্জাব (১,৬১৮), মধ্যপ্রদেশ (১,৪৫৩), রাজস্থানে (১,০৮১) মোট মৃত্যু এক হাজার ছাড়িয়ে বেড়ে চলেছে। এর পর তালিকায় রয়েছে তেলঙ্গানা, হরিয়ানা, জম্মু ও কাশ্মির, বিহার, ওড়িষ্যা, ঝাড়খন্ড, উত্তরাখন্ড, ছত্তিসগড়, গোয়ার মতো রাজ্যগুলো আছে।সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা

error: Content is protected !!