ভারতকে বিপদে ফেলার নতুন ফাঁদ, গালওয়ান নদীর গতিপথ বদল করছে চীন

ডেস্ক রিপোর্ট:

ভারত-চীন সীমান্তে উত্তেজনা বেড়েই চলেছে। গালওয়ান উপত্যকায় হওয়া সংঘাতে অন্তত ২০ জন ভারতীয় সৈন্য নিহত হওয়া এবং সংঘাতের পর দুই দেশের মধ্যে উত্তেজনা নতুন মাত্রা পেয়েছে। চীন যুদ্ধের প্ররোচনা দিলে ভারত যে ছেড়ে কথা বলবে না, তা স্পষ্ট করে দিয়েছে দেশটির সেনাবাহিনী। তাই কি এবার অন্যভাবে ভারতের পথে কাঁটা বিছিয়ে দিতে চাইছে চীন। 

সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের হাতে আসা এক উপগ্রহ চিত্র এই প্রশ্ন তুলে দিয়েছে। হাই রেজোলিউশনের উপগ্রহ চিত্রে দেখা যাচ্ছে, গালওয়ান নদীর (Galwan River) গতিপথ বদলানোর চেষ্টা চালাচ্ছে চীন।

উপগ্রহ চিত্র অনুযায়ী, ভারত-চিন (China) সীমান্তের খুব কাছাকাছি গালওয়ান নদীর কাছে বুলডোজার জড়ো করেছে চীন। যা দেখে ওয়াকিবহাল মহলের ধারণা, সেই নদীর গতিপথে পরিবর্তন ঘটানোর চেষ্টা করছে চীন। যেখানে বুলডোজারগুলি দাঁড় করানো আছে, সেখান থেকে ক্ষীণ ধারায় নদীটি বয়ে যাচ্ছে। সেখানে বুলডোজার দাঁড় করিয়ে কাদামাটি ফেলে নদীর গতিপথ অবরুদ্ধ করা হতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। 

প্রসঙ্গত, চীন থেকে বয়ে আসা নদীটি লাদাখের উপর দিয়ে বয়ে গিয়েছে। এই নদীর ধারেই ভারতীয় সেনাবাহিনীর ট্রাক দাঁড়িয়ে রয়েছে। সেখানেই সেনা জওয়ানরা অতন্দ্র পাহারায় থাকে। এই নদীর গতিপথের কাছে চীনের বুলডোজার জড়ো করা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। যদিও এ বিষয়ে চিনের তরফে কোনও বিবৃতি মেলেনি।

বিগত ৪৫ বছরের ইতিহাসে প্রাণহানির কুৎসিততম নজির গড়েছে গালওয়ান। পূর্ব লাদাখে ওই উপত্যকায় ভারতীয় ভূখণ্ড রক্ষা করতে গিয়ে ১৫ জুন চীনা বাহিনীর হামলায় শহিদ হয়েছেন ২০ জন ভারতীয় জওয়ান। তারপর থেকেই লাগাতার আলোচনা চলছে দু’দেশের মধ্যে। তবে বিবাদ কিছুতেই মিটছে না। এখনও গালওয়ানে ঘাঁটি গেড়ে বসে আছে লাল ফৌজ। প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় (LAC) আরও সংঘাত এড়াতে বুধবার ভারত ও চীনের মধ্যে মেজর জেনারেল স্তরে বৈঠক হয়। 

তবে চীনা বাহিনীর একগুঁয়ে মনোভাবের জন্য ভেস্তে যায় আলোচনা। সূত্রের খবর, পূর্ব লাদাখে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে বৃহস্পতিবার ফের বৈঠকে বসেছেন দুই দেশের সেনা কর্তারা। এমন পরিস্থিতিতে গালোয়ান নদীর কাছে বুলডোজার জড়ো করার উপগ্রহ চিত্র চাঞ্চল্য আরও বাড়িয়েছে।

প্রসঙ্গত, ভারত চীনের যে স্থানে সংঘর্ষ ঘটে সংবাদ মাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে খাড়া পর্বতের প্রায় ১৪ হাজার ফুট (৪,২৬৭ মিটার) উচ্চতায় দুই দেশের সৈন্যদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। কিছু সৈন্য পা পিছলে খরস্রোতা গালওয়ান নদীতে পড়ে গেছেন, যেখানে শৈল প্রবাহের তাপমাত্রা ছিল হিমাঙ্কের নিচে।  সাম্প্রতিক সময়ে ভারত ও চীনের মধ্যে বিতর্কিত সীমান্ত এলাকায় ছোটখাট সংঘর্ষের ঘটনা ঘটলেও ৪৫ বছরের মধ্যে এই প্রথম দুই দেশের মধ্যে সংঘর্ষে প্রাণহানির ঘটনা ঘটল। সংবাদ প্রতিদিন।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

error: Content is protected !!