বাংলাদেশে বাংলাভাষী কর্মকর্তা নিয়োগ দিল ফেসবুক

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম তথা ফেসবুকে বাংলাদেশি কনটেন্ট বিষয়ে যে কোনো সমস্যা দ্রুত সমাধানসহ বাংলাদেশের অংশ দেখাশোনার জন্য একজন বাংলাদেশি বাংলাভাষীকে নিয়োগ দিয়েছে জনপ্রিয় এই সোশ্যাল মিডিয়া কর্তৃপক্ষ।
সোমবার (৭ সেপ্টেম্বর) ভার্চুয়াল মাধ্যমে ফেসবুকের সিঙ্গাপুরের আঞ্চলিক সদরদপ্তরের সঙ্গে বৈঠকে এই তথ্য জানানো হয়েছে বলে ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার জানিয়েছেন।
প্রায় তিন ঘণ্টার বৈঠকে নানা বিষয়ে আলোচনা হয়েছে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, কনটেন্ট বিষয়ে বিদ্যমান যে কোনো সমস্যা দ্রুত সমাধানসহ বাংলাদেশের অংশ দেখাশোনার জন্য একজন বাংলাদেশি বাংলাভাষীকে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। বাংলাদেশ বিষয়ক বাংলাভাষী নিয়োগ দেওয়ার ফলে তার সাথে খুব সহজে যোগযোগ রক্ষা করা যাবে এবং যে কোনো বিষয়ে দ্রুত সাড়া পাওয়া যাবে।

ফেসবুকের নব নিযুক্ত বাংলাদেশ বিষয়ক কর্মকর্তা সাবনাজ রশিদ দিয়া এখন থেকে যে কোনো বিষয়ে দ্রুত সমাধানের উদ্যোগ নেবেন বলে জানান তিনি।
বাংলাদেশের পক্ষ থেকে ফেসবুক কনটেন্ট নিয়ে আপত্তি তোলার পর তা তৃতীয় পক্ষকে দিয়ে যাচাই করার বিষয়টি যাতে না হয়, সে বিষয়েও আলোচনা হয়েছে বলে জানান মোস্তাফা জব্বার।

তিনি বলেন, ফেসবুক কর্তৃপক্ষকে বলা হয়েছে, তারা যেন বুঝতে পারে এটি রাষ্ট্রের বিষয় এখানে কোনো ব্যক্তি আপত্তি তুলছে না।

বাংলাদেশে আইন আছে, সেই আইন মোতাবেক ফেসবুককে কনটেন্ট এবং অন্যান্য বিষয়গুলো বাস্তবায়ন করতে হবে। ফেসবুক কর্তৃপক্ষ বিষয়গুলো গুরুত্বের সাথে দেখার বিষয়ে আশ্বাস দিয়েছে।

বৈঠকের বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনসহ বাংলাদেশের সংশ্লিষ্ট সকল প্রচলিত আইন ও বিধি-বিধান মেনে চলা ফেইসবুকের দায়িত্ব। রিসেলার নিয়োগ, জাতীয় রাজস্ব বোর্ডকে কর প্রদানে প্রতিনিধি নিয়োগ এবং বাংলা ভাষার সঠিক অনুবাদ ও প্রয়োগের প্রয়োজনীয়তার ওপর গুরুত্ব আরোপ করা হয়েছে।

ভ্যাট বিষয়ে ফেসবুকের অবস্থান নিয়ে টেলিযোগাযোগমন্ত্রী বলেন, বৈঠকে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের সদস্য উপস্থিত ছিলেন। তিনি ভ্যাট বিষয়ে ফেইসবুক কর্তৃপক্ষ বলেছে, এ বিষয়ে কোনো অফিস স্থাপন না করে সরাসরি কোনো একটা উপায় করা যায় কি না যাতে বিষয়টি দ্রুত সমাধান করা সম্ভব হয়।
ফেসবুক ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন ২০১৮, কর ও ভ্যাট বিষয়ক আইন মেনে চলার আশ্বাস দিয়েছে বলে জানান মোস্তাফা জব্বার।

বাংলাদেশে ফেসবুকের অনুমোদিত সেলস পার্টনার এইচটিটিপুল বাংলাদেশ লিমিটেডের বিরুদ্ধে ৯৩ লাখ টাকা ভ্যাট ফাঁকির অভিযোগে মামলার বিষয়ে আলোচনা হয়েছে কি না জানতে চাইলে মোস্তাফা জব্বার বলেন, ফেসবুক কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, সেটি এইচটিটিপুলের নিজস্ব বিষয়। তারাই বিষয়টি সমাধান করবে, কারণ তারা ফেসবুকের অংশ নয়।

গত ১৩ অগাস্ট এইচটিটিপুল বাংলাদেশ লিমিটেডের বিরুদ্ধে ৯৩ লাখ টাকা ভ্যাট ফাঁকির অভিযোগে মামলা করেছে ভ্যাট গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তর।

বৈঠকে মোস্তাফা জব্বার বাংলাদেশে নৈরাজ্য, পর্নগ্রাফি, সন্ত্রাস, গুজব রটানো, পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁস, অপপ্রচার ও সামাজিক নিরাপত্তাসহ বিদ্যমান বিভিন্ন বিষয়ে ফেসবুককে বাংলাদেশের নিয়ম-নীতি মেনে নিরাপদ ফেইসবুক ব্যবহারের ব্যবস্থা নেওয়ার আহ্বান জানান।
বৈঠকে জানানো হয়, ফেইসবুক বিটিআরসি ও সংশ্লিষ্টদের সাথে প্রতি মাসে অন্তত একটি করে বৈঠকের মাধ্যমে বাংলাদেশে তাদের স্বচ্ছ কার্যক্রম বাস্তবায়নে কাজ করবে।

বৈঠকে বিটিআরসির মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোস্তাফা কামাল, জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের সদস্য (ট্যাক্স পলিসি) আলমগীর হোসেন, বিটিআরসির জ্যেষ্ঠ সহকারী পরিচালক তৌসিফ শাহরিয়ার ও আমজাদ হোসেনসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠকে ফেসবুকের হেড অব সেইফটি বিক্রম সেনগ, ফেসবুকের পাবলিক পলিসি বিষয়ক পরিচালক অশ্বিনী রানা, ফেইসবুকের নব নিযুক্ত বাংলাদেশ বিষয়ক কর্মকর্তা সাবনাজ রশিদ দিয়া এবং ফেসবুকের মোবাইল পার্টনার বিভাগের ইরাম ইকবাল অংশ নেন আলোচনায় ।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

error: Content is protected !!