বাংলাদেশে করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৪৩, নতুন শনাক্ত ১৭২৪

বাংলাদেশে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরও ৪৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মোট মৃত্যু হয়েছে চার হাজার ৮০২ জনের।নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন এক হাজার ৭২৪ জন। সব মিলিয়ে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে তিন লাখ ৪১ হাজার ৫৬ জনে।

মঙ্গলবার (১৫ সেপ্টেম্বর) বিকেলে অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

এতে বলা হয়, ঢাকা সিটিসহ দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ও বাড়িতে উপসর্গ বিহীন রোগীসহ গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন দুই হাজার ৪৩৯ জন। এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন দুই লাখ ৪৫ হাজার ৫৯৪ জন। সারাদেশে সরকারি ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ৯৪টি ল্যাবে নমুনা সংগ্রহ ও পরীক্ষা হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা সংগ্রহ হয়েছে ১৪ হাজার ৬৪৮টি। মোট নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ১৪ হাজার ৫০টি। এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ১৭ লাখ ৫৬ হাজার ৭৪৬টি।

এতে আরও বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষার হার ১২ দশমিক ২৭ শতাংশ।
এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ১৯ দশমিক ৪১ শতাংশ এবং শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৭২ দশমিক শূন্য এক শতাংশ এবং শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুর হার এক দশমিক ৪১ শতাংশ।

বিজ্ঞপ্তিতে নাসিমা সুলতানা জানান, ২৪ ঘণ্টায় মৃত ৪৩ জনের মধ্যে ৩৬ জন পুরুষ ও নারী সাত জন। এদের মধ্যে রয়েছেন ঢাকা বিভাগে ২৭ জন, চট্টগ্রাম বিভাগে তিন জন, রাজশাহী ও রংপুর বিভাগে দুই জন করে চার জন। এছাড়া সিলেট বিভাগে চার জন ও খুলনা বিভাগে পাঁচ জন রয়েছেন । এদের মধ্যে হাসপাতালেই মারা গেছেন ৪৩ জন।

মৃতদের বয়স বিশ্লেষণে দেখা যায়, ৬০ বছরের ঊর্ধ্বে ৩২ জন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে সাত জন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে তিন জন, ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে এক জন রয়েছেন।

গত ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশনে এসেছেন ২৮৮ জন ও আইসোলেশন থেকে ছাড় পেয়েছেন ৫৩১ জন। এ পর্যন্ত আইসোলেশনে এসেছেন ৭৭ হাজার ৪৯৭ জন। আইসোলেশন থেকে ছাড়পত্র নিয়েছেন ৫৯ হাজার ৮৯৩ জন। বর্তমানে আইসোলেশনে আছেন ১৭ হাজার ৬০৪ জন বলেও বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

এর একদিন আগে সোমবার (১৪ সেপ্টেম্বর) দেশে ১ হাজার ৮১২ জনের দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। এছাড়া আক্রান্তদের মধ্যে মারা যান আরও ২৬ জন।

করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের সংখ্যা ও প্রাণহানির পরিসংখ্যান রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডওমিটারের তথ্যানুযায়ী, মঙ্গলবার (১৫ সেপ্টেম্বর) সকাল পর্যন্ত বিশ্বের বিভিন্ন দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে ৯ লাখ ৩২ হাজার ৭৪৪ জনের এবং আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২ কোটি ৯৪ লাখ ৪২ হাজার ৩২৮ জনে। এর মধ্যে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ২ কোটি ১২ লাখ ১৭৬ হাজার ৬৬৫ জন।

আক্রান্ত ও মৃত্যু উভয় সংখ্যার দিক থেকেই বিশ্বে এখনো শীর্ষ অবস্থানে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। দেশটিতে এখন পর্যন্ত মোট ৬৭ লাখ ৪৯ হাজার ২৮৯ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ১ লাখ ৯৯ হাজার মানুষের। আর সুস্থ হয়েছেন ৪০ লাখ ২৭ হাজার ৮২৬ জন।

ব্রাজিলকে পেছনে ফেলে আক্রান্তের সংখ্যায় দ্বিতীয় অবস্থানে উঠে এসেছে প্রতিবেশী ভারত। সেখানে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ৪৯ লাখ ২৬ হাজার ৯১৪ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ৮০ হাজার ৮০৮ জনের। আর সুস্থ হয়েছেন ৩৮ লাখ ৫৬ হাজার ২৪৬ জন।

আক্রান্তের সংখ্যায় তৃতীয় অবস্থানে থাকা লাতিন আমেরিকার দেশ ব্রাজিলে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত ৪৩ লাখ ৪৯ হাজার ৫৪৪ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ১ লাখ ৩২ হাজার ১১৭ জনের। আর সুস্থ হয়েছেন ৩৬ লাখ ১৩ হাজার ১৮৪ জন।

আক্রান্তের সংখ্যায় চতুর্থ অবস্থানে থাকা রাশিয়ায় এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১০ লাখ ৬৮ হাজার ৩২০ জন। এর মধ্যে মারা গেছেন ১৮ হাজার ৬৩৪ জন। সুস্থ হয়েছেন ৮ লাখ ৭৮ হাজার ৭০০ জন।

গত বছরের ডিসেম্বরের শেষ দিকে চীনের হুবেই প্রদেশের উহান থেকে করোনাভাইরাস সংক্রমণ শুরু হয়। এখন পর্যন্ত বাংলাদেশসহ বিশ্বের ২১৫টি দেশে ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে কোভিড-১৯।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

error: Content is protected !!