বাংলাদেশে করোনায় আরও ৩৩ মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ২১৭৪

বাংলাদেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আরও ৩৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল ৪ হাজার ২৮১ জনে। এছাড়া নতুন করে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে আরও ২ হাজার ১৭৪ জনের দেহে। এ নিয়ে দেশে মোট শনাক্ত হলো ৩ লাখ ১২ হাজার ৯৯৬ জন করোনা রোগী।
সোমবার (৩১ আগস্ট) বিকেলে করোনাভাইরাস নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদফতরের প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

সংস্থার অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, এ সময়ের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন আরও ২ হাজার ৯৮০ জন। এ নিয়ে মোট সুস্থ হয়েছেন ২ লাখ ৪ হাজার ৮৮৭ জন।

এতে বলা হয়, ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ১৭ দশমিক ৪৬ শতাংশ। এ পর্যন্ত শনাক্তের হার ২০ দশমিক ১৯ শতাংশ। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৬৫ দশমিক ৪৬ শতাংশ এবং শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুর হার এক দশমিক ৩৭ শতাংশ। সারাদেশে সরকারি ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ৯২টি ল্যাবে নমুনা সংগ্রহ ও পরীক্ষা হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা সংগ্রহ হয়েছে ১২ হাজার ৮৯টি। আগের নমুনাসহ মোট নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ১২ হাজার ৪৫৪টি। এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ১৫ লাখ ৫০ হাজার ২০৩টি।

বিজ্ঞতিতে নাসিমা সুলতানা জানান, ২৪ ঘণ্টায় মৃত ৩৩ জনের মধ্যে ২৯ জন পুরুষ ও নারী চার জন। এদের মধ্যে রয়েছেন ঢাকা বিভাগে ২১ জন, চট্টগ্রাম বিভাগে চার জন, রাজশাহী বিভাগে পাঁচ জন। এছাড়া খুলনা, বরিশাল ও রংপুর বিভাগে এক জন করে তিন জন রয়েছেন। এদের মধ্যে হাসপাতালে মারা গেছেন ৩২ জন, বাড়িতে এক জন। মৃতদের বয়স বিশ্লেষণে দেখা যায়, ৬০ বছরের ঊর্ধ্বে ২০ জন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে ছয় জন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে তিন জন, ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে তিন জন, ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে এক জন রয়েছেন।

গত ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশনে এসেছেন ৪৯৪ জন ও আইসোলেশন থেকে ছাড় পেয়েছেন ৫৮১ জন। এ পর্যন্ত আইসোলেশনে এসেছেন ৭১ হাজার ৩৩৪ জন। আইসোলেশন থেকে ছাড়পত্র নিয়েছেন ৫১ হাজার ৩৯২ জন। বর্তমানে আইসোলেশনে আছেন ১৯ হাজার ৯৪২ জন বলেও বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

এর একদিন আগে রোববার (৩০ আগস্ট) দেশে আরও ৪২ জনের মৃত্যু হয়। এছাড়া আরও ১ হাজার ৮৯৭ জনের দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়।
এদিকে, বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ২ কোটি ৫৩ লাখ ৯০ হাজার ছাড়িয়েছে। আর এ মহামারিতে আক্রান্ত হয়ে বিশ্বে মৃতের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ৮ লাখ ৫০ হাজার।

করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের সংখ্যা ও প্রাণহানির পরিসংখ্যান রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডওমিটারের তথ্যানুযায়ী, সোমবার (৩১ আগস্ট) দুুপুর ১২টা পর্যন্ত বিশ্বের বিভিন্ন দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে ৮ লাখ ৫০ হাজার ৬৩১ জনের এবং আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২ কোটি ৫৩ লাখ ৯০ হাজার ৯৬৯ জনে। এর মধ্যে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১ কোটি ৭৭ লাখ ৯ হাজার ৭৩১ জন।

বিশ্বে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়ে সবচেয়ে বেশি মৃত্যু হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে। সেখানে মোট মৃত্যু ১ লাখ ৮৭ হাজার ২২৫ জন। বিশ্বে সর্বোচ্চ আক্রান্তের সংখ্যাও এই দেশটিতে। এ নিয়ে ৬১ লাখ ৭৩ হাজার ৩২৮ জন এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন।
আর আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যায় দ্বিতীয় অবস্থানে আছে ব্রাজিল। দেশটিতে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ৩৮ লাখ ৮২ হাজার ৩১১ জন। এবং এখন পর্যন্ত মারা গেছেন ১ লাখ ২০ হাজার ৮৯৬ জন।

মৃতের সংখ্যায় ব্রাজিলের পরেই আছে মেক্সিকো। দেশটিতে এখন পর্যন্ত এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৬৪ হাজার ১৫৮ জন। আক্রান্ত হয়েছেন ৫ লাখ ৯৫ হাজার ৮৪১ জন।করোনায় আক্রান্তের দিক থেকে তৃতীয় অবস্থানে উঠে এসেছে ভারত। দেশটিতে করোনায় এ পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ৩৬ লাখ ২৪ হাজার ৬১৩ জন। মৃত্যুর দিক থেকে চতুর্থ অবস্থানে আছে দেশটি। এখন পর্যন্ত মারা গেছেন ৬৪ হাজার ৬৪৬ জন।আক্রান্তের দিক থেকে চতুর্থ অবস্থানে আছে রাশিয়া। দেশটিতে আক্রান্ত ৯ লাখ ৯০ হাজার ৩২৬ জন। আর মৃতের সংখ্যা ১৭ হাজার ৯৩ জন।

সুস্থতার দিক থেকেও প্রথম অবস্থানে আছে যুক্তরাষ্ট্র (৩৪ লাখ ২৫ হাজার ৭২৭ জন), দ্বিতীয় অবস্থানে আছে ব্রাজিল (৩ লাখ ৩১ হাজার ৫৫৯ জন), এবং তৃতীয় অবস্থানে আছে ভারত (২৭ লাখ ৭৫ হাজার ১৯৪ জন)।

গত বছরের ডিসেম্বরের শেষ দিকে চীনের হুবেই প্রদেশের উহান থেকে করোনাভাইরাস সংক্রমণ শুরু হয়। এখন পর্যন্ত বাংলাদেশসহ বিশ্বের ২১৫টি দেশে ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে মহামারি করোনা ।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

error: Content is protected !!