বলিউডে মাদককাণ্ড: মেয়ের পাশে নেই সাইফ আলি

গত ১৪ জুন বলিউড অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুত মুম্বাইয়ের বান্দ্রায় নিজের ফ্ল্যাটে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেন। তবে কী কারণে সুশান্ত আত্মহত্যা করেছেন, সেই রহস্য এখনো কাটেনি।তবে মাদক সংশ্লিষ্টতার অভিযোগে গোয়েন্দা নজরদারিতে রয়েছেন বলিউডের আরও ৩০ তারকা। মামলায় গ্রেফতার প্রযোজক ক্ষিতিশ প্রসাদের সঙ্গে বেশ কয়েকজনের যোগাযোগের প্রমাণ পেয়েছে মাদক নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর।

এদিকে, মাদককাণ্ডে নাম জড়িয়েছে সাইফ আলি খানের একমাত্র কন্যা সারা আলি খানের। ২৬ সেপ্টেম্বর জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ভারতের নারকোটিকস কন্ট্রোল ব্যুরো (এনসিবি) তলব করেছিল এ অভিনেত্রীকে। ভারতীয় গণমাধ্যমের তথ্যমতে, সারা আলি খানের বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি প্রয়াত সুশান্ত সিং রাজপুতের সঙ্গে মাদক সেবন

করতেন। সেজন্য সুশান্তের পাভানা লেকহাউসের মাদক পার্টিতে অংশ নিতেন। এ ছাড়া সুশান্তের সবশেষ প্রেমিকা রিয়া এনসিবিকে জানিয়েছে, ‘কেদারনাথ’ সিনেমায় অভিনয়ের সময় থেকে মাদক গ্রহণ শুরু করেন সুশান্ত। এই সিনেমাতে সুশান্তের বিপরীতে অভিষেক হয়েছিল সারার।

টাইমস অব ইন্ডিয়ার বরাতে বলিউড বাবলের খবর, এনসিবি কর্তৃক ড্রাগ তদন্তে কন্যা সারা আলি খানকে সাহায্য করতে অস্বীকার করেছেন বাবা সাইফ আলি খান। এ ছাড়া মাদককাণ্ডের জন্য সাবেক স্ত্রী অমৃতা সিংয়ের সঙ্গে গণ্ডগোলকে দায়ী করেছেন সাইফ।

প্রতিবেদনে আরো বলা হয়েছে, সাইফ আলি খান বর্তমানে দিল্লিতে অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী কারিনা কাপুরের সঙ্গে আছেন। সেখানে কারিনা ‘লাল সিং চাড্ডা’ সিনেমার শুটিং করছেন। তবে মাদককাণ্ডে সারার দাদি শর্মিলা ঠাকুর নাতনিকে সাহায্য করার চেষ্টা করছেন।

এর আগে দীর্ঘ আলোচনার পর মাদক মামলায় গেল ৮ সেপ্টেম্বর গ্রেপ্তার হন প্রয়াত বলিউড অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের সবশেষ প্রেমিকা রিয়া চক্রবর্তী। গত ২৫ জুলাই সুশান্তের বাবা কে কে সিং অভিনেত্রী ও প্রয়াতের প্রেমিকা রিয়া চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে আত্মহত্যায় প্ররোচনা এবং বিষণ্ণতার জন্য তাঁকে দায়ী করে এফআইআর দায়ের করেন।

এদিকে, খ্যাতিমান প্রযোজক করণ জোহরের সহযোগী ক্ষিতিশের হোয়াটস অ্যাপ চ্যাটিং থেকে বেশকিছু তথ্য-প্রমাণ মিলেছে। মাদক চোরাকারবারে প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে তারকাদের যোগসূত্রের বিষয়টি বেরিয়ে এসেছে অনুসন্ধানে। যেকোনো সময় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডাকা হতে পারে তাদের।
ভারতীয় গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, ক্ষিতিশের মোবাইল থেকে ডিলিটকৃত টেক্সট উদ্ধারেও চেষ্টা চালাচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা। গ্রেফতারের পর গত রবিবার ক্ষিতিশ প্রসাদকে আদালতে তোলা হয় ।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

error: Content is protected !!