ফ্রান্সে দ্বিতীয়বার কাউন্সিলর হলেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত শারমিন

এবার ফ্রান্সের মিউনিসিপ্যাল নির্বাচনে অংশ নিয়ে আরও এক বাংলাদেশি নারী নির্বাচিত হয়েছেন। আরও তিন বাংলাদেশি প্রার্থীর প্যানেল নির্বাচিত হয়েছে। তারাও ক্রমান্বয়ে কাউন্সিলর পদে আসীন হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

নির্বাচিত বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত শারমিন হক আব্দুল্লাহ রাজধানী প্যারিসের উপকণ্ঠে পিয়েখফি পৌরসভায় প্রতিন্দ্বিতা করেন। তার দলের মেয়র মিশেল ফোরকাড ৫১ দশমিক ৮ শতাংশ ভোট পেয়ে মেয়র নির্বাচিত হন। তিনি মেয়র ঘোষিত প্যানেলে প্রথম সারিতে থাকায় তার নাম কাউন্সিলর হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে। এ নিয়ে শারমিন হক দ্বিতীয় মেয়াদের কাউন্সিলর হলেন।

এছাড়া স্থাঁ পৌরসভা থেকে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ফরাসী নাগরিক রাব্বানী খান প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে নির্বাচিত মেয়রের প্যানেলে আছেন। রাব্বানী খানের বাড়ি ঢাকার গাজীপুরে। তিনি ফ্রঁসে আভেক রাব্বানী ইন্সটিটিউটের স্বত্বাধিকারী।

সিলেটের জকিগঞ্জের সরুফ সদিওল সেন্ট ডেনি পৌরসভা থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে নির্বাচিত মেয়রের প্যানেলে রয়েছেন। একইভাবে সেভরন পৌরসভা থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে নির্বাচিত মেয়রের প্যানেলে আছেন সিলেটের দক্ষিণ সুরমার মো. রেজাউল করিম।

উল্লেখ্য, শারমিন হক পূর্ণাঙ্গ নির্বাচিত হয়েছেন। বাকি তিনজন নির্বাচিত মেয়রের প্যানেলে থাকায় তারা চলতি মেয়াদের যে কোনো এক সময় কাউন্সিলর পদ পেতে পারেন। এবার ফ্রান্সে স্থানীয় সরকার (পৌরসভা) নির্বাচনে কাউন্সিলর প্রার্থী হিসেবে বিভিন্ন এলাকা থেকে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ফরাসি নাগরিক অংশ গ্রহণ করেন।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

error: Content is protected !!