প্রধানমন্ত্রীর কাছে দুটি আবেদন জানালেন মাশরাফি

মহামারি করোনাভাইরাসে গোটা বাংলাদেশে চলছে লকডাউন। এতে বিপাকে পড়েছেন নিম্ন আয়ের মানুষ। সমাজের অসহায় দরিদ্রদের পাশে দাড়িয়েছেন দাঁড়িয়েছেন নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য ও জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। শুধু সরকারিভাবেই নয়, ব্যক্তিগতভাবেও তিনি দুস্থদের পাশে দাড়িয়েছেন। এবার নড়াইলবাসীর জন্য প্রধানমন্ত্রীর কাছে দুটি আবেদন করেছেন মাশরাফি।

তার উদ্যোগে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ, নড়াইল সদর হাসপাতাল ও লোহাগড়া উপজেলা সাস্থ্য কমপ্লেক্সের ডাক্তার ও নার্সদের পিপিই সরবারহ, সদর হাসপাতালে জীবাণুনাশক কক্ষ চালু ও ভ্রাম্যমাণ চিকিৎসা সেবা চালু করা হয়েছে।

নড়াইলে ১০ টাকার চাল আরও বেশি বরাদ্দ করতে ও সদর হাসপাতালে একটি আইসিইউ স্থাপনের আবেদন জানিয়েছেন তিনি।

মাশরাফি বলেন, আজকের নড়াইলে আমরা একটি কমিটি গঠন করে করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে কাজ করছি। বিশেষ করে জেলা প্রশাসক ও পুলিশ ভাইয়েরা অক্লান্ত পরিশ্রম করছেন। তারা লকডাউন ও কোয়ারেন্টিনের বিষয়ে জন সচেতনা তৈরি করছেন।

এর পর মাশরাফি প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে বলেন, আপনি এখানকার সংসদ সদস্য ছিলেন। এই আসন আপনার। এই আসনের দিকে আপনি অবশ্যই মনোযোগ দেবেন। নড়াইল সদর হাসপাতালে আড়াইশো বেডের হাসপাতালে একটি আইসিইউ দিলে নড়াইলবাসী আরও উপকৃত হবেন।

মাশরাফি অনুরোধ করেন, নড়াইলে যাদের ত্রাণ প্রয়োজন তারা ত্রাণ পেয়ে যাচ্ছেন। এখানে কমিটি করে সঠিকভাবে ত্রাণ বিতরণ চলছে। তাই এখানে ১০ টাকার চাল আরও বেশি বরাদ্দ দিলে জনগণ উপকৃত হবেন।

জবাবে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আসন্ন রমজান মাসকে সামনে রেখে আবারও চাল দেয়া হবে। এই সংকটময় সময়ে নড়াইলের যেসব জনপ্রতিনিধিরা মানুষের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন তারা আগামীতেও এর ধারাবাহিকতা বজায় রাখবেন। মানুষের যেন কোনো কষ্ট না হয় সে দিকে খেয়াল রাখবেন-এটাই আমার কামনা। এসময় করোনায় মাশরাফির নেওয়া পদক্ষেপের প্রশংসা করেন প্রধানন্ত্রী।

এদিকে করাগারের কর্মকর্তা-কর্মচারী ও কারবন্দিদের সাবান, মাস্ক, গ্লাভস ও স্যানিটাইজার দিয়েছেন মাশরাফি।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.