‘পৃথিবীতে আমরা এসেছি একসঙ্গে, বিদায়ও নেব একসঙ্গে’

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস বিশ্বজুড়ে কেড়ে নিয়েছে প্রায় দুই লক্ষের বেশি প্রাণ। তাদের মধ্যে দু’জন হলেন কেটি ডেভিস আর এমা ডেভিস। তারা দু’জন জমজ বোন। তারা ব্রিটেনের সাউদাম্পটনের বাসিন্দা ছিলেন। এ জমজ বোন অনেক সময় বলতেন, ‘আমরা পৃথিবীতে এসেছি একসঙ্গে, বিদায়ও নেব একসঙ্গে’। ভাগ্যের নির্মম পরিহাসে এই দু’ যমজ বোনের তিন দিনের ব্যবধানে নভেল করোনাভাইরাসে মৃত্যু হয়েছে।

আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম বিবিসি জানায়, ৩৭ বছর বয়সী কেটি ছিলেন নার্স। মঙ্গলবার ( ২১ এপ্রিল) সাউদাম্পটন জেনারেল হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়। এরপর একই হাসপাতালে শুক্রবার ( ২৪ এপ্রিল) মারা যান তার বোন এমা।

দু’জনের আরেক বোন জো বলেন, ‘ওরা সব সময় বলত আমরা একইসঙ্গে পৃথিবী থেকে যেতে চাই। দু’জনের খুব ভালো সম্পর্ক ছিল।’

ইউনিভার্সিটি হসপিটাল সাউদাম্পটন এনএইচএস ফাউন্ডেশন ট্রাস্টের প্রধান নির্বাহী পলা হেড কেটিকে দারুণ একজন সহকর্মী হিসেবে উল্লেখ করেছেন তার সহকর্মীরা। তারা বলেছেন, মানুষ যেমনটা হওয়ার স্বপ্ন দেখে থাকে, কেটি ছিলেন তেমনই এক নার্স। নার্সিং পেশাটা তার কাছে ছিল চাকরির চেয়েও বেশি কিছু। এমন দারুণ কর্মী আর হয় না।

ব্রিটেনে এই নিয়ে শতাধিক স্বাস্থ্যকর্মী নভেল করোনাভাইরাসে প্রাণ হারালেন। বোনের মতো এমাও নার্স ছিলেন। চিলড্রেন হাসপাতালের কোলোরেক্টাল সার্জারি ইউনিটে ৯ বছর কাজ করার পর ২০১৩ সালে নার্সিং ছেড়ে দেন তিনি।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, কেটির মতো তারও শারীরিক অবস্থা ভালো ছিল না। কভিড-১৯ এ আক্রান্ত হওয়ার পর হাসপাতালে ভর্তির আগে থেকেই অসুস্থ ছিলেন তিনি।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.