পুরোদমে প্রবাসীদের সেবা দিচ্ছে বাংলাদেশ জেদ্দা কনস্যুলেট

সৌদি আরবে লকডাউন প্রত্যাহারের পর থেকেই পুরোদমে প্রবাসীদের সেবা দিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেদ্দা। তবে করোনার কারণে তিন মাসের বেশি সময় ধরে কাজ জমা পড়ে যাওয়ায় সেবা দিতে কিছুটা বিলম্ব হলেও আগামী কয়েকদিনের মধ্যে তা স্বাভাবিক হয়ে যাবে বলে আশ্বাস কনস্যুলেট কর্মকর্তাদের।

করোনাভাইরাসের কারণে দীর্ঘদিন জেদ্দা কনস্যুলেটের স্বাভাবিক কার্যক্রম বন্ধ থাকায়, পাসপোর্ট নবায়ন করতে পারেননি অনেকেই। এখন লকডাউন তুলে নেয়ায় এবং পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক হওয়ায় আবার পাসপোর্ট নবায়ন ও নতুন পাসপোর্ট ডেলিভারি শুরু করেছে কনস্যুলেট। তবে লম্বা লাইনের কারণে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে সেবা নিতে হিমশিম খেতে হচ্ছে প্রবাসীদের।

সৌদি প্রবাসীরা বলছেন, কনস্যুলেটের সব সময় আমাদের দেখছেন। তারা আমাদের গুরুত্বের সাথে সেবা দিয়ে যাচ্ছেন। পাসপোর্ট জমা নেওয়া ডেলিভারি দেওয়াসহ সব প্রক্রিয়া সন্দরভাবে সম্পন্ন করে দিচ্ছেন।

লকডাউনের কারণে প্রায় ৪ মাসের কাজ জমে থাকা পাসপোর্ট ডেলিভারি দিতে এখন কিছুটা বিলম্ব হলেও আগামী কিছুদিনের মধ্যেই তা স্বাভাবিক হবে বলে আশা কনস্যুলেটের কনসাল জেনারেলের।

বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেদ্দার কনসাল জেনারেল ফয়সাল আহমেদ বলেন, চারমাসের ব্যাক লোক রাতারাতি সমাধান করা সম্ভব নয়। একটু সময় দিতে আমাদের। ইনশাল্লাহ আমরা সমাধান করতে পারব।

বর্তমানে প্রতিদিন ১৫০০ থেকে ২০০০ প্রবাসীকে সেবা দিচ্ছে কনস্যুলেট। তবে এখনও সেবা দিতে নানা কারণে হচ্ছে বিলম্ব। খুব শিগগিরই সাপ্তাহিক ছুটির দিন ছাড়া অন্য যেকোনো দিন ফোন কল বা এপোয়েনমেন্ট ছাড়াই কনস্যুলেট থেকে সরাসরি সেবা নিতে পারবেন প্রবাসীরা।

বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেদ্দার প্রথম সচিব মোস্তফা জামিল খাঁন বলেন, আমাদের এখানে লকডাউন কার্ফিউ তোলার পর আমাদের এখানে চাপ বেশি। চেষ্টা করিছি আমরা।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

error: Content is protected !!