পাচারকারীরা নৌকা থেকে ৮০ জনকে সমুদ্রে ফেলে দিল, ২০ জনের মৃত্যু

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

নৌকা থেকে ৮০ জনকে সমুদ্রে ফেলে দিল পাচারকারীরা, ২০ জনের মৃত্যু

বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসের মধ্যে বিশ্বের প্রায় সব দেশের সীমান্ত বন্ধ থাকলেও থামেনি অবৈধ অভিবাসন। আফ্রিকার বহু মানুষ এখনও মধ্যপ্রাচ্যের ধনী দেশগুলোতে গিয়ে ভাগ্যবদলের আশায় রওয়ানা দিচ্ছেন বেআইনি পথে। একাজ করতে গিয়ে সম্প্রতি প্রাণ হারিয়েছেন অন্তত ২০ জন অভিবাসনপ্রত্যাশী।

আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থা (আইওএম) এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, বুধবার পূর্ব আফ্রিকার দেশ জিবুতি থেকে ইয়েমেনগামী একটি নৌকায় অতিরিক্ত যাত্রী বোঝাই হয়ে গেলে সেখান থেকে ৮০ জনকে ছুড়ে ফেলে পাচারকারীরা। এতে অন্তত ২০ জন মারা গেছেন।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, নৌকাটিতে শিশুসহ অন্তত ২০০ জন অভিবাসনপ্রত্যাশী উঠেছিলেন। তখন পাচারকারীরা অতিরিক্ত লোক হয়ে গেছে বলে চিৎকার করতে থাকে।

আইওএম জানিয়েছে, এপর্যন্ত পাঁচজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। বেঁচে যাওয়া লোকদের জিবুতিতে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

এসব অভিবাসনপ্রত্যাশী কোন দেশের নাগরিক, তা এখনও নিশ্চিত নয়। তবে আফ্রিকান অভিবাসনপ্রত্যাশীরা সাধারণত ‘হর্ন অব আফ্রিকা’ বলে খ্যাত এলাকাগুলো থেকে রওয়ানা দিয়ে প্রথমে ইয়েমেনে প্রবেশ করেন। পরে সেখান থেকে মধ্যপ্রাচ্যের উন্নত দেশগুলোতে ঢোকার চেষ্টা করেন।

গত অক্টোবরেই জিবুতির কাছে নৌকা থেকে ফেলে দেওয়ায় আট অভিবাসনপ্রত্যাশীর মৃত্যু হয়েছিল। ২০১৭ সালে ইয়েমেন উপকূলে সোমালিয়া ও ইথিওপিয়ার অন্তত ৫০ অভিবাসনপ্রত্যাশীকে ফেলে দিয়েছিল পাচারকারীরা।

২০১৮ সালে এই রুটেই একটি নৌকা ডুবে ৩০ জনের মৃত্যু হয়েছিল। এ ঘটনায় বেঁচে যাওয়া ব্যক্তিরা গুলি চলার কথা উল্লেখ করেন।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

error: Content is protected !!