মারফি ব্রিফিং টুডে

নিউজার্সি মলগুলো খুলছে ২৯ জুন

নিউজার্সি পুনরায় খোলা এবং অন্যান্য বিষয় নিয়ে গভর্নর মারফির বক্তব্য।

দীর্ঘ তিন মাসের নিষেধাজ্ঞার পর ২৯ জুন থেকে খুলতে যাচ্ছে নিউজার্সির শপিংমল্গুলো। বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে গভর্নর মারফি বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। মরনব্যাধি করোনাভাইরাস কোভিড-১৯ এর প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে গত ১৭ মার্চ নিউজার্সিতে লকডাউন ঘোষণা করা হয়।

নিউ জার্সির অর্থনীতির চালিকাশক্তি যে মলগুলো তা এই মাসের শেষদিকে ক্রেতাদের কাছে আবার খুলতে পারে বলে ঘোষণা করেছিলেন গভর্নর ফিল মরফি।

সমস্ত গ্রাহককে মলের অভ্যন্তরে সর্বদা মুখের আচ্ছাদন (ফেসমাস্ক) পরিধান করতে হবে, তবে মাস্ক পরলে যাদের সমস্যা তাদের বেলায় ব্যাতিক্রম এবং ২ বছরের কম বয়সী বাচ্চাদের মাস্ক পরানো লাগবে না, সীমিত পরিসরে নিয়মিত ক্রেতার অর্ধেক প্রবেশ করতে পারবেন। ফুড কোর্ট, রেস্তোরাঁ (ইনডোর) এবং লোকজনের বসার জায়গাগুলো যথারীতি বন্ধ থাকবে। রেস্তোঁরাগুলি শুধু টেকআউট, ডেলিভারি এবং আউটডোর ডাইনিংয়ের অফার চালিয়ে যেতে পারে। চলচ্চিত্রের প্রেক্ষাগৃহ এবং তোরণগুলির মতো অভ্যন্তরীণ ব্যবসা বন্ধ থাকবে। মারফি বলেছিলেন। মারফি বলেন, মল অপারেটরদের ভিড় এড়াতে গ্রাহকদের সুরক্ষা এবং গ্রাহক সমাগম নিয়ন্ত্রণের নীতিমালা এবং পরিকল্পনা স্থাপন করতে বলা হবে। – যদি সম্ভব হয় তবে কেবল প্রবেশদ্বার এবং প্রস্থান-শুধুমাত্র পয়েন্ট তৈরি করা হবে। তিনি আরও বলেন, মলগুলিকে অবশ্যই তাদের কর্মী এবং পৃষ্ঠপোষক উভয়কেই স্যানিটাইজেশন উপকরণ সরবরাহ করতে হবে, বিশেষত প্রবেশ পথে।

রাজ্যে ভাইরাসটি উদ্ভূত হওয়ার তিন মাসেরও বেশি সময় ধরে নিউ জার্সিতে করোনাভাইরাস এখন ১২৮০০ বাসিন্দা প্রাণ হারিয়েছেন। আর আক্রান্ত হয়েছেন এক লাখ ৬৮ হাজার ১০৭ জন। বৃহস্পতিবার গভর্নর মারফি তার নিয়মিত করোনাভাইরাস ব্রিফিংয়ে বলেন।


তবে সম্প্রতি রাজ্যে আক্রান্তের সংখ্যা হ্রাস পাওয়ায় নিউ জার্সি সোমবার তার পুনরায় খোলার পরিকল্পনার দ্বিতীয় পর্যায়টি শুরু করেছিল – যখন রেস্তোরাঁগুলোতে শুধু টেক আউট সক্ষমতা অনুসারে গ্রাহকদের সেবা দানের অনুমতি দেওয়া হয় এবং হেয়ার সেলুন এবং অন্যান্য ব্যক্তিগত যত্ন ব্যবসায়ের পুনরায় খোলার অনুমতি দেওয়া হওয়ায় দ্বিতীয় পর্যায়টি এই সোমবারে অব্যাহত রয়েছে।

মারফি জানান নিউজার্সি খোলার তৃতীয় পর্যায়ের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত আগামী সপ্তাহ খানেকের মধ্যেই আসবে। তিনি আরো জানান মার্চ মাসের মাঝামাঝি থেকে কোভিড-১৯ এর বিরুদ্ধে লড়াইয়ের জন্য আগ্রাসী সামাজিক দূরত্বের পর থেকে ১.২ মিলিয়নেরও বেশি নিউ জার্সিবাসী বেকারত্বের জন্য আবেদন করেছেন। রাজ্যের বেকারত্ব মে মাসে ১৫.২% ছিল।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

error: Content is protected !!