ধেয়ে আসছে ভয়ংকর ধূলিমেঘ

আমেরিকার দিকে ধেয়ে আসছে বিশাল আকারের এক ভয়ংকর ধূলিমেঘ । বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বিশাল এই ধূলিমেঘের এমন আকার গত ৫০ বছরে দেখা যায়নি। 

বিপজ্জনক ধূলিমেঘের উপস্থিতি সংশ্লিষ্ট এলাকার বায়ুমণ্ডলে বায়ুমানের অবনতি ঘটাতে পারে। এ কারণে সবাইকে সব সময় মাস্ক ব্যবহার করতে অনুরোধ জানানো হয়েছে।পরিবেশ ও স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ পাবলো মেন্ডেজ লেজারো বলেন, এ অঞ্চলের জনগণ গত ৫০ বছর এ ধরনের বিপজ্জনক পরিস্থিতির সম্মুখীন হয়নি। বর্তমানে ক্যারিবিয়ান অঞ্চলের কয়েকটি দেশের অবস্থা বিপজ্জনক পর্যায়ে রয়েছে বলে খবরে জানা যায়।

স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা বলছেন, যাদের শ্বাস কষ্ট আছে, তাদের জন্যে ধূলিমেঘের উপস্থিতি মারাত্মক উদ্বেগের কারণ হতে পারে। লেজারো বলেন, ধূলিমেঘের অবস্থান গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করতে না পারলে একসময় সুস্থ্য মানুষের জন্যও এটা হুমকির কারণ হতে পারে। এই ধূলিমেঘের কারণে ক্যারিবিয়ান অঞ্চলের বেশ ক’টি দেশে পরিষ্কারভাবে তেমন কিছু দেখা যাচ্ছে না। কিছু কিছু এলাকার জনগণকে এর ভয়াবহতা থেকে রক্ষা পেতে দুটি মাস্ক ব্যবহার করতেও দেখা যায়।

সান হুয়ানের জাতীয় আবহাওয়া অধিদপ্তরের প্রধান, ‘হুজে আলমো’ বলেন, জুন মাসের শেষ সপ্তাহের দিকে আমেরিকার দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলের আকাশে এই ধূলিমেঘ দেখা যেতে পারে। এই মুহূর্তে সান হুয়ানের প্রধান বিমানবন্দরের প্রায় আট মাইলের মধ্যে মেঘটি দেখা যাচ্ছে বলে খবরে প্রকাশ।

শুকনো ধূলিযুক্ত এই ধূলিমেঘটি কিছু দিনের মধ্যেই মধ্য উত্তর আটলান্টিক মহাসাগরে প্রবেশ করে আগস্ট পর্যন্ত আমেরিকার আকাশে চূড়ান্ত অবস্থান নেবে বলে মনে করা হচ্ছে। এই ধূলিমেঘের স্তর আমেরিকার বায়ুমণ্ডলে দুই মাইল ঘনত্বে বিচরণ করবে বলে আমেরিকার সামুদ্রিক ও পরিবেশ রক্ষা বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

error: Content is protected !!