তরুণীকে চেম্বারের ভেতরেই ‘ধর্ষণ’, গ্রেপ্তার চিকিৎসক

পিরোজপুরে নিজের চেম্বারে তরুণীকে সহকারীকে ‘ধর্ষণে’র ঘটনায় গ্রেপ্তার হয়েছেন এক চিকিৎসক (৫৫)। গত বুধবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটে ।
শুক্রবার (৩ জুলাই) চিকিৎসককে গ্রেপ্তারের বিষয়টি গণমাধ্যমে জানান পিরোজপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহা. নূরুল ইসলাম বাদল।

মামলার এজাহার থেকে জানা গেছে, এসএসসি পাস ওই তরুণী গত ১৭ জুন পিরোজপুর শহরে একজন এমবিবিএস চিকিৎসকের ব্যক্তিগত চেম্বারে চাকরি নেন। তার বেতন ৭ হাজার টাকা ধার্য করা হয়। চেম্বারে তাকে প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৩টা পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করতে হতো। গত বুধবার দুপুরে তাকে চেম্বারে একা পেয়ে ধর্ষণ করেন ওই চিকিৎসক।

এজাহারে আরও উল্লেখ করা হয়েছে, ধর্ষণের ঘটনার সময় তরুণীর মুখমণ্ডলে আঘাত লাগে। তিনি মুঠোফোনে ডাক্তারের ছবি তোলায় সেটি ভেঙে ফেলা হয়।

ওসি মুহা. নূরুল ইসলাম বাদল বলেন, ‘নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়েরের পর গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে ওই চিকিৎসককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ভুক্তভোগী তরুণীর স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে পিরোজপুর সিভিল সার্জন অফিসে।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

error: Content is protected !!