November 28, 2020

মাই পেটারসন. লাইফ

ভয়েস অফ দ্যা কমিউনিটি

ডোনাল্ড ট্রাম্পের নির্বাচনী প্রচারণা ম্যানেজার করোনায় আক্রান্ত

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের নির্বাচনী প্রচারণা ম্যানেজার বিল স্তেপিন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। শুক্রবার নির্বাচনী প্রচারণা শিবিরের মুখপাত্র টিম মার্টাগ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।মার্কিন সাময়িকী পলিটিকো ম্যানেজার বিল স্তেপিন করোনায় আক্রান্তের তথ্য প্রথম প্রকাশ করে।

সংবাদমাধ্যমটি জানিয়েছে, শুক্রবার স্তেপিনের করোনা শনাক্ত পরীক্ষা করা হয়। তার মধ্যে ‘হালকা ফ্লুর মতো লক্ষণ’ দেখা গেছে।

গত মঙ্গলবার ট্রাম্পের প্রথম প্রেসিডেন্ট বিতর্ক অনুষ্ঠানে হাজির ছিলেন স্তেপিন। সুস্থ হওয়ার আগ পর্যন্ত তিনি কোয়ারেন্টাইনে চলে যাবেন বলে জানিয়েছেন ট্রাম্পের এই নির্বাচনী প্রচারণা কর্মকর্তা।

প্রসঙ্গত, শুক্রবার সকালে ট্রাম্প প্রথম তার করোনায় আক্রান্তের বিষয়টি জানান। এর কিছুক্ষণ পর ফার্স্টলেডি মেলানিয়ার করোনায় আক্রান্তের খবর জানায় হোয়াইট হাউজ। পর্যবেক্ষণ ও চিকিৎসার জন্য ট্রাম্পকে হোয়াট হাউজ থেকে সামরিক হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।আগামী কয়েকদিন হাসপাতালে কাটাতে হবে তাকে।

আগে থেকেই হোয়াইট হাউসের লনে অপেক্ষমান প্রেসিডেন্সিয়াল হেলিকপ্টার মেরিন ওয়ানে করে হাসপাতালে যান ট্রাম্প। নিজেই হেঁটে হেলিকপ্টারে ওঠেন তিনি। ইতোপূর্বে মাস্ক পরায় প্রতিদ্বন্দ্বী জো বাইডেনকে নিয়ে ব্যাঙ্গ করলেও এদিন হাসপাতালে যাওয়ার পথে তিনি নিজেও মাস্ক পরিধান করেন।

হেলিকপ্টারে ওঠার আগে সাংবাদিকদের উদ্দেশে হাত নাড়েন ট্রাম্প। থাম্বস আপ প্রতীকও প্রদর্শন করেন। তবে এ সময় তিনি কোনও কথা বলেননি। সরাসরি গিয়ে হেলিকপ্টারে চড়ে বসেন।

বিবিসি জানিয়েছে, ট্রাম্পকে বহনকারী হেলিকপ্টার হাসপাতালে পৌঁছেছে। তবে এখনও পর্যন্ত হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কোনও বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

এর আগে টুইটারে পোস্ট করা এক ভিডিওতে ট্রাম্প বলেন, ‘আমাকে অভূতপূর্ব সমর্থন দেওয়ায় সবাইকে ধন্যবাদ জানাতে চাই। ওয়াল্টার রিড হাসপাতালে যাচ্ছি। আমি মনে করি আমি খুব ভালো আছি। সবকিছু ঠিক আছে; এটা নিশ্চিত হতেই সেখানে যাচ্ছি। ফার্স্ট লেডিও যথেষ্ট ভালো আছেন।’

সংবাদমাধ্যম বিবিসি জানিয়েছে, হাসপাতালে পাঠানোর আগে ট্রাম্পকে পরীক্ষামূলক অ্যান্টিবডি দেওয়া হয়। পরে বাড়তি সাবধানতার অংশ হিসেবে তাকে ওয়াল্টার রিড ন্যাশনাল মিলিটারি মেডিক্যাল সেন্টারে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেন হোয়াইট হাউসের কর্মকর্তারা। এটি যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে বড় ও স্বনামধন্য সামরিক হাসপাতালগুলোর একটি। মার্কিন প্রেসিডেন্টরা সাধারণত এখানেই তাদের বার্ষিক চেকআপ করিয়ে থাকেন।

error: Content is protected !!