চীন ছেড়ে ভারতে আসছে বিদেশি বিনিয়োগকারীরা

করোনাভাইরাসের কারণে উৎপাদনের হাব হিসেবে চীন থেকে সরে আসতে চাইছে বেশকিছু কোম্পানি। প্রায় হাজার খানেক বিদেশী সংস্থা ইতিমধ্যেই ভারতের সঙ্গে বিভিন্ন স্তরে আলোচনা শুরু করেছে বলে খবর বেরিয়েছে ভারতের সংবাদমাধ্যগুলো। এদের মধ্যে অন্তত ৩০০টি সংস্থা সক্রিয় ভাবে ছক কষেছে ভারতে ‌সরে আসার। সেই সব সংস্থাগুলি হল- মোবাইল, ইলেকট্রনিক্স, মেডিকেল ডিভাইস, টেক্সটাইল এবং সিন্থেটিক ফেব্রিক্সউৎপাদনকারী। এমনটাই জানা যাচ্ছে ‌ বলে এক সর্বভারতীয় এক সংবাদমাধ্যমে রিপোর্টে।

ওই প্রতিবেদনে এক সরকারি আধিকারিক সূত্রে জানা গেছে, এইসব সংস্থাগুলি ভারতকে বিকল্প উৎপাদনের হাব হিসেবে দেখতে চাইছে। আর তাদের পক্ষ থেকে কেন্দ্রীয় সরকারের বিভিন্ন দফতর , বিদেশে থাকা ভারতীয় মিশন এবং রাজ্যের শিল্প দফতর সহ বিভিন্ন স্তরে সরকারকে প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। তিনি জানিয়েছেন, এইরকম এক হাজার সংস্থার মধ্যে ৩০০ সংস্থাকে তারা তাদের লক্ষ্য হিসেবে রেখেছেন।

ওই আধিকারিক আশাবাদী একসময় করোনা নিয়ন্ত্রণে আসবে। তারপর এর সুফল পাওয়া যাবে। আর ভারত হয়ে উঠবে উৎপাদন ক্ষেত্রে বিকল্প গন্তব্য। জাপান ইউ এস এবং দক্ষিণ কোরিয়া সহ বহু দেশ এখন চিনের উপর বড্ড বেশি নির্ভরশীল। প্রসঙ্গত, উৎপাদন ক্ষেত্রকে চাঙ্গা করতে গত সেপ্টেম্বর মাসে কেন্দ্রীয় সরকার কর্পোরেট ট্যাক্স কমিয়ে করেছিল ২৫.১৭ শতাংশ।

নতুন উৎপাদনকারীদের জন্য কমিয়ে ১৭ শতাংশ কর করা হয়েছে যা দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ায় সর্বনিম্ন । এদিকে জাপান ইতিমধ্যেই তাদের সংস্থাগুলিকে চিন ছাড়ার জন্য ২ বিলিয়ন ডলারের আর্থিক প্যাকেজ ঘোষণা করেছে। ভারত আশা করছে, আরও অনেক দেশ এবার জাপানের দেখানো পথেই হাঁটবে।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

error: Content is protected !!