চীনে ছড়াচ্ছে আরেক ভাইরাস, মহামারীর আশঙ্কা বিশেষজ্ঞদের

ডেস্ক রিপোর্ট:

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস গোটা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়ার ৬মাস পেরিয়ে গেলেও এখনো তাণ্ডব কমেনি। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলছে, করোনার আসল রুপ এখনো বাকিই আছে। এমন অবস্থায় এক নতুন এক ফ্লু ভাইরাস চিহ্নিত করেছেন বিজ্ঞানীরা । নতুন এ ভাইরাসটিও মিলেছে চীনে। এটিই মহামারী আকারে ছড়িয়ে পড়তে পারে বলে আশঙ্কা করছেন বিশেষজ্ঞরা।  

বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, সম্প্রতি চিহ্নিত হওয়া এই ভাইরাসটি শূকর বহন করে। মানুষের আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি’র প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানা গেছে। 

বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হচ্ছে, নতুন এই ফ্লু ভাইরাসের নামকরণ হয়েছে জি৪ইএএইচ১এন১। এটি মানুষের শ্বাসযন্ত্রের মধ্যে বেড়ে উঠতে এবং বিস্তার ঘটাতে পারে। যারা চীনে শূকর এবং কসাইখানায় কাজ করছেন তাদের এই ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার প্রমাণ মিলেছে।বর্তমানে বাজারে যেসব টিকা রয়েছে সেগুলো প্রয়োগ করেও সুরক্ষা মিলছে না। 

চীনের বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, শূকরবাহিত নতুন ফ্লু ভাইরাসটির মানুষকে আক্রান্ত করার মতো অভিযোজিত হওয়ার সব ধরনের লক্ষণ রয়েছে। এছাড়া নতুন ভাইরাস, কাজেই মানুষের সুস্থ হওয়ার সম্ভাবনা খুবই কম থাকবে। তবে এখনই উদ্বিগ্ন হওয়ার মতো কিছু না থাকলেও এটি নিবিড় পর্যবেক্ষণে রাখা দরকার বলে মনে করছেন তারা। 

চীনে আবিষ্কার হওয়া নতুন এ ভাইরাসটির সঙ্গে ২০০৯ সালে মেক্সিকো থেকে ছড়িয়ে পড়া সোয়াইন ফ্লুর মিল পেয়েছেন বিজ্ঞানীরা। তবে এখন পর্যন্ত নতুন এ ভাইরাস বড় কোনো হুমকি তৈরি করেনি। 

ভাইরাসটি নিয়ে গবেষণা করা যুক্তরাজ্যের নটিংহাম বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত প্রফেসর কিন-চো চ্যাং এবং তার সহকর্মীরা বলছেন, এই মুহূর্তে আমরা করোনাভাইরাস নিয়ে বিক্ষিপ্ত হয়ে রয়েছি এবং সেটাই সঠিক। কিন্তু আমাদের অবশ্যই নতুন ভাইরাসের সম্ভাব্য বিপদের ওপর থেকে চোখ সরানো চলবে না। 

নতুন এই ভাইরাসটি এখনই সমস্যা তৈরি করছে না জানিয়ে গবেষকরা বলছেন, আমাদের এটি কোনওভাবেই অবহেলা করা উচিত হবে না। এর ওপর নজর রাখার প্রয়োজন রয়েছে।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

error: Content is protected !!