চীনের ৪০ কোটির বেশি মানুষ এখন ভয়ানক ঝুঁকির মধ্যে

এবার প্রকৃতির রোষানলে পড়েছে শি জিন পিং এর দেশ চীন। ভয়াবহ বন্যায় যে কোনো মুহূর্তে ভেঙে পড়তে পারে বিশ্বের বৃহত্তম বাঁধ। ভয়ানক বিপজ্জনক অবস্থায় রয়েছে চীন।

এই বাঁধ ভেঙে গেলে চীনের ৪০ কোটিরও বেশি মানুষ ভয়ানক ঝুঁকির মধ্যে পড়বে তা নিঃসন্দেহে বলা যেতে পারে। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বাঁধ চীনের থ্রি জর্জেস। এই বাঁধের কাছে এরই মধ্যে বন্যা সতর্কতা জারি করা হয়েছে। এখানেই তৈরি হয়েছে বিশ্বের বৃহত্তম পানি বিদ্যুৎ প্রকল্প।

৭০ বছরের মধ্যে সবচেয়ে ভয়াবহ বন্যার কবলে এখন চীন। চলতি জুন মাসে চীনের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল এবং মধ্য অঞ্চল জুড়ে মুষলধারে বৃষ্টিপাত হচ্ছে। লাগাতার এই বর্ষণের কারণে একাধিক নদীর পানি উপচে প্লাবিত হয়েছে বিস্তীর্ণ অঞ্চল। আরো কয়েকটি নদীর পানি বিপদসীমার উপর দিয়ে বইছে। ফলে, নদীর তীরবর্তী অঞ্চলের মানুষজনকে নিরাপদ দূরত্বে সরিয়ে নেয়া হচ্ছে।

বর্ষার শুরুতেই আকাশ যে ভয়ঙ্কর গর্জন শুরু করেছে, সেই সঙ্গে বর্ষণও হচ্ছে ভারী, তাতে আর কয়েক সপ্তাহ বর্ষণের এই ধারাবাহিকতা বজায় থাকলে চীনের পক্ষে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে নেওয়া মুশকিল হয়ে পড়বে।  এক সঙ্গে  ৪০ কোটি মানুষের নিরাপত্তার স্থান দেয়া যাবে কী করে তা নিয়ে স্থানীয় প্রশাসনের অশান্তি চরমে। এর মধ্যে যদি আবার বিপজ্জনক অবস্থায় থাকা থ্রি জর্জেস বাঁধ ভাঙে, তাহলে পরিস্থিতি সামাল দেওয়া চীনের পক্ষে মুশকিলই হবে।

চীনের জনপ্রিয় গ্লোবাল টাইমস পত্রিকা অবশ্য বাঁধ ভাঙার আশঙ্কা নাকচ করে দিয়েছে। গ্লোবাল টাইমসের বক্তব্য, এ ধরনের যে রিপোর্ট বেরিয়েছে তা ঠিক নয়। বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে কথা হয়েছে। বন্যায় বাঁধ ভাঙার কোন সম্ভাবনা নেই বলে বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন। কিন্তু দেশটির বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, গত কয়েক সপ্তাহ ধরে ভারী বর্ষণ চলেছে। যার ফলে সেখানে ২৪টি প্রদেশে প্রাকৃতিক বিপর্যয় ঘোষণা করা হয়েছে। উক্ত প্রদেশগুলি ইয়াংজি নদী ও থ্রি জর্জেস বাঁধের বিস্তীর্ণ অঞ্চলের মধ্যেই রয়েছে।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

error: Content is protected !!