চীনের পাশে থাকতে লাদাখে যাচ্ছে পাকিস্তানি ২০ হাজার সেনা

ডেস্ক রিপোর্ট:

ভারত-চীন সীমান্তে বিরাজ করছে চরম উত্তেজনা। ক্রমশই উত্তপ্ত হয়ে উঠছে দুই দেশের সম্পর্ক। লাদাখ সীমান্তে গলওয়ান উপত্যকায় চীনা সেনাদের সঙ্গে সংঘর্ষের পর দফায় দফায় বেঠক হলেও উত্তেজনা কমেনি। বরং সতর্ক অবস্থানে আছে দুই দেশের সেনারা। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার কথা বলছে দুই পক্ষই কিন্তু তা মূলত বৈঠকেই। এরই মধ্যে সামনে এলো চাঞ্চল্যকর তথ্য!

শোনা যাচ্ছে, পাকিস্তানের সঙ্গে যোগসাজস চলছে চীনের। আর তাই চীনের পাশে থাকার জন্য এগিয়ে যাচ্ছে পাকিস্তানি সেনা।

গিলগিট-বালতিস্তান এলাকার দিকে সেনা পাঠিয়েছে পাকিস্তান। চীনা সেনার সঙ্গে যুক্ত হওয়ার জন্য ২০,০০০ অতিরিক্ত বাহিনী লাদাখ অঞ্চলের দিকে পাঠিয়েছে পাকিস্তান। মনে করা হচ্ছে, চীন-পাকিস্তান উভয়েই ভারতের সঙ্গে ‘টু ফ্রন্ট ওয়ার’ এর দিকে যেতে চাইছে।

ইন্ডিয়া টুডে-তে প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী, পাকিস্তানের গুপ্তচর সংস্থা আইএসআই-এর সঙ্গে গোপনে কথাবার্তা চলছে চীনের। এমনকি পাকিস্তানের কুখ্যাত বর্ডার অ্যাকশন টিম (ব্যাট)-কে দিয়ে ভারতে হামলা চালানোর পরিকল্পনাও করা হচ্ছে।

এদিকে আবার কাশ্মীরের দিকে দলে দলে জঙ্গি পাঠানো হচ্ছে। সাম্প্রতিককালে অন্তত ১২০ জঙ্গিকে হত্যা করেছে ভারতীয় সেনা। এদের বেশির ভাগই পাকিস্তানি জঙ্গি বলে জানা গেছে। ভারতীয় সেনার ওপর হামলা চালিয়ে ভারতের পরিস্থিতি টালমাটাল করে দেওয়ার ছক কষছে দুই দেশ।

এদিকে গণমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, গত দু-তিনসপ্তাহের ভেতর চীনা সেনাবাহিনী প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা বা ‘এলএসি’ বরাবর অন্তত চার জায়গায় অতিক্রম করে অবস্থান নিয়েছে। সেই জায়গাগুলো হল লাদাখের প্যাংগং সো বা প্যাংগং লেক, গালওয়ান নালা ও ডেমচক আর সিকিমের নাকু লা।

কখন চীনের সেনাবাহিনী ভারতের সেই গ্রামে ঢুকে পড়ে – সেই আতঙ্ক আর অনিশ্চয়তায় দিন কাটছে সেখানকার গ্রামবাসীদের।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

error: Content is protected !!