কেন মাস্ক পরেন না পুতিন?

মহামারি করোনা প্রাদুর্ভাবের সময় রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনকে আবারও মাস্ক কিংবা সুরক্ষা পোশাক ছাড়াই জনসম্মুখে দেখা গেছে।

বুধবার (১ জুলাই) দেশটির সরকারি টেলিভিশন চ্যানেলে প্রচারিত দৃশ্যে দেখা গেছে, সংবিধান সংশোধনে আয়োজিত গণভোটে মাস্ক ও হ্যান্ড গ্লাভস ছাড়াই ভোট দিতে গিয়েছিলেন পুতিন। অবশ্য ভোট কেন্দ্রের সবাই মাস্ক পরিহিত অবস্থায় ছিলেন।

কৌশলগতভাবে বলা যায়, এর মাধ্যমে পুতিন কোয়ারেন্টাইন নিয়ম ভঙ্গ করেছেন। কারণ মস্কোতে এখনও অবরুদ্ধ সরকারি স্থানে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক।

অবশ্য পুতিন করোনা প্রাদুর্ভাবের পর এ পর্যন্ত কখনোই মাস্ক পরেননি। গত মার্চে মস্কোর কোমুনারকা হাসপাতালে কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত রোগীদের দেখার সময় একবার সম্পূর্ণ সুরক্ষা পোশাক পরেছিলেন। তবে কোমুনারকা হাসপাতালের প্রধান ডেনিস প্রোতসেঙ্কোর সঙ্গে সাক্ষাতের সময় পুতিন সুরক্ষা পোশাক পরেননি মাস্কও ব্যবহার করেননি। এর এক সপ্তাহ পর করোনায় আক্রান্ত হন প্রোতসেঙ্কো। আর আইসোলেশনে চলে যান পুতিন।

তাহলে এরপরও পুতিন কেন মাস্ক পরছেন না?

বিবিসি জানিয়েছে, সম্ভবত এর প্রধান কারণ পুতিনের পাবলিক ইমেজ। তার এই ইমেজ গড়ে উঠেছে পৌরুষপূর্ণ ব্যক্তিত্বের ওপর ভিত্তি করেই। ঘোড়ায় চড়ে বুক খোলা রেখে ঘুরে বেড়ানো পুতিনের ছবি কয়েক বছর আগে ভাইরাল হয়েছিল নেট দুনিয়ায়। এই দৃষ্টিকোন থেকে রাশিয়ার শক্তিমান এই শাসকের জন্য মাস্ক পরা দুর্বলতার লক্ষণ।

এপ্রিলে রাশিয়ার সরকারি টেলিভিশনে আইসোলেশন থেকে ফেরার পর পুতিনের সঙ্গে সরকারি কর্মকর্তাদের বৈঠকের ফুটেজ প্রচারিত হয়। সম্ভবত পুতিন করোনার ভয়ে ভীত নয় তা প্রমাণ করতেই প্রচারিত হয়েছিল এই দৃশ্য ।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

error: Content is protected !!