কারোনায় সহিংসতা বাড়ার আশঙ্কা জাতিসংঘ মহাসচিবের

মহামারি করোনাভাইরাসকে এক প্রজন্মের লড়াই আখ্যা দিয়ে জাতিসংঘের মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস বলেছেন, করোনা বিশ্ব শান্তি ও নিরাপত্তার জন্য হুমকি।

জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদকে সতর্ক করে দিয়ে গুতেরেস বলেন, এই মহামারির কারণে সামাজিক অস্থিরতা ও সহিংসতা বাড়ার আশঙ্কা রয়েছে। আর এতে করে মহামারি মোকাবিলায় বিশ্বের সক্ষমতা খর্ব হতে পারে। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম গার্ডিয়ান এই খবর জানিয়েছে।
অ্যান্তোনিও গুতেরেস বলেন, ‘এই উদ্বেগজনক সময়ে কাউন্সিল থেকে ঐক্যের আভাস ও একটি প্রস্তাব বড় স্বস্তি হয়ে উঠতে পারে’। করোনা মহামারির সময়ে শান্তি ও নিরাপত্তা বজায় রাখতে নিরাপত্তা পরিষদের ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ হবে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

করোনা মহামারি থেকে উদ্ভুত কয়েকটি বিষয় বিশ্ব শান্তিকে হুমকিতে ফেলতে পারে বলে জানান জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস। বিষয়গুলো হলো: সশস্ত্র গোষ্ঠীগুলো এটাকে হামলার সুযোগ হিসেবে দেখতে পারে, বিশেষ করে জৈব হামলা; সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোর ওপর থেকে বিশ্বাস উঠে যেতে পারে; অর্থনৈতিক অস্থিরতা; নির্বাচন স্থগিত হওয়ায় রাজনৈতিক উত্তেজনা; অনিশ্চয়তার কারণে কয়েকটি দেশে আরও বিভক্তি ও অস্থিরতা তৈরি হতে পারে এছাড়া কোভিড-১৯ এর কারণে বিভিন্ন ধরনের মানবাধিকার চ্যালেঞ্জ তৈরি হতে পারে।

গোটা বিশ্বে ইতিমধ্যেই করোনাভাইরাসে ১৬ লক্ষেরও বেশি মানুষ সংক্রমিত হয়ে পড়েছেন। এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গোটা বিশ্বে ১ লক্ষের কাছাকাছি মানুষের মৃত্যু হয়েছে। প্রতিদিন বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। করোনায় আক্রান্ত হয়ে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে মৃত্যু।

বিশ্বজুড়ে তৈরি হওয়া এই পরিস্থিতির মধ্যেই নতুন এক আশঙ্কার কথা জানাল জাতিসংঘ। বিশ্বের সাম্প্রতিক পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনার জন্য জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকে মহাসচিব গুয়েতেরেসের আশঙ্কা, ‘করোনা পরিস্থিতির সুযোগে সন্ত্রাস হানা বাড়তে পারে’।

জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে বিশ্বের সাম্প্রতিক পরিস্থিতির কথা বিচার করে একাধিক সিদ্ধান্ত নেওয়া হতে পারে। ওই বৈঠকেই মহাসচিব আন্তোনিও গুয়েতেরেস আরও বলেন, ‘সাম্প্রতিক এই পরিস্থিতির ফায়দা নিতে পারে জঙ্গিরা। জৈব-অস্ত্র ব্যবহার করে সন্ত্রাসবাদী হামলার সুযোগ ক্রমশই বাড়ছে।’

গোটা বিশ্ব লড়ছে এই ভাইরাসের সঙ্গে। করোনার হাত থেকে বাঁচতে নিরন্তর গবেষণা চালিয়ে যাচ্ছেন বিশ্বের তাবড় দেশের বিজ্ঞানীরা। এখনও পর্যন্ত করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিনের সন্ধান মেলেনি। কবে মিলবে তারও স্পষ্ট দিনক্ষণ জানা নাই।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

error: Content is protected !!