কলকাতায় ১৭৭ তাবলিগি সদস্যকে কোয়ানান্টাইন করা হয়েছে: মমতা

কলকাতায় ১৭৭ জন তাবলিগি সদস্যকে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। এ তথ্য জানিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের মৃখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। তিনি জানান রাজ্যে বিভিন্ন জায়গায় ছড়িয়ে পড়া তাবলিগি জামাত সদস্যদের খুঁজে বের করছে প্রশাসন। ভয়ঙ্কর রোগের সংক্রমণ যাতে না ছড়ায় তার জন্যে ইতিমধ্যেই ১৭৭ জন তাবলিগি সদস্যকে কোয়ানান্টাইন করা হয়েছে।

মমতা বলেন, ওই ১৭৭ জনের মধ্যে আবার ১০৮ জন বিদেশিও রয়েছেন। নিজামুদ্দিন ফেরত ১০৮ জন বিদেশিকে আমাদের এখানে কোয়ারান্টাইন করে রেখেছি। তাঁরা কেউ মায়ানমার, কেউ ইন্দোনেশিয়া, কেউ বাংলাদেশের নাগরিক। সঙ্গে বাংলারও ৬৯ জনকেও রাখা হয়েছে। নিউটাউনের হজ হাউসে মোট ১৭৭ জন তাবলিগি সদস্য কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন। আমাদের স্বাস্থ্য দফতরের আধিকারিকরা গোটা পরিস্থিতির দিকে সজাগ দৃষ্টি রাখছেন”, নবান্নের সাংবাদিক বৈঠক থেকে এই কথা জানান মুখ্যমন্ত্রী।

এদিকে রাজ্যে ক্রমশই করোনা সংক্রমণ ছড়াচ্ছে। পশ্চিমবঙ্গ সরকারের স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রকের সাম্প্রতিক পরিসংখ্যান অনুযায়ী, রাজ্যে ১০৩ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন, এঁদের মধ্যে আবার ১৬ জন সুস্থ হয়ে গেছেন এবং ৫ জন মারা গেছেন।

গত মাসে দিল্লির নিজামুদ্দিনের ধর্মীয় সমাবেশের পর থেকেই দেশে দ্রুত হারে বাড়তে থাকে করোনা সংক্রমণ।কেন্দ্রীয় সরকারের একটি পরিসংখ্যান জানাচ্ছে, ভারতে মোট করোনা আক্রান্তের মধ্যে এক হাজারেরও বেশি রোগী বা এদেশে করোনা সংক্রমণের মোট সংখ্যার প্রায় ৩০ শতাংশই তাবলিগ-ই-জামাতের সদস্য। গত মাসে দিল্লির নিজামুদ্দিন এলাকায় ইসলামী সম্প্রদায় তাবলিগ-ই-জামাত একটি বিরাট ধর্মীয় সমাবেশের আয়োজন করে যাতে যোগ দেন বহু বিদেশিও।