করোনা পার্টি করে সুস্থদের আক্রান্ত করা হচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রে!

গত ডিসেম্বরে চীন থেকে উৎপত্তি হওয়া করোনাভাইরাস এখনো তাণ্ডব চালাচ্ছে গোটা বিশ্বে। এখন ইউরোপের দেশগুলোতে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা কমে এসেছে। তবে বেড়েই চলেছে আমেরিকা ও এশিয়াতে। এখনও সবচেয়ে বেশি খারাপ অবস্থা যুক্তরাষ্ট্রে। এখন পর্যন্ত দেশটিতে সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত ও মৃত্যু হয়েছে। যেনো মৃতু্্যর মিছিল থামছেই না। সেই দেশে কি না পার্টি দিয়ে ছড়ানো হচ্ছে করোনাভাইরাস।

জানা গেছে, যুক্তরাষ্ট্রের সিয়াটোলের দক্ষিণ-পূর্বে অবস্থিত ওয়াল্লা ওয়াল্লা কাউন্টিতে প্রায় ১০০ জনের মত করোনা রোগী পাওয়া গেছে। যাদের মধ্যে অনেকেই পার্টির আয়োজন করে করোনা ভাইরাস ছড়াচ্ছেন। সুস্থ মানুষকে ভাইরাসে আক্রান্ত করাই তাদের মূল লক্ষ্য বলে ওই রোগীরা জানিয়েছেন । এ বিষয়ে ওয়াল্লা ওয়ালা কমিউনিটের স্বাস্থ্য পরিচালক মেঘান ডিবোল্ট বলেন, আক্রান্তদের মধ্যে অনেকেই পার্টির আয়োজন করে করোনা ভাইরাস ইচ্ছা করেই ছড়াচ্ছেন। আমরা জানি না কি হচ্ছে। আমরা রোগীদের কাছ থেকেই এমনটি শুনেছি।

কিছুদিন আগেও যুক্তরাষ্ট্রে করোনা পার্টির খবর প্রকাশিত হয়েছিল। গত মার্চে যুক্তরাষ্ট্রের ক্যান্টাকির গভর্নর অ্যান্ডি বেশেয়ার জানিয়েছিলেন যে এক ব্যক্তি করোনা পার্টিতে অংশ নিয়ে আক্রান্ত হয়েছেন।

প্রসঙ্গত, বুধবার যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটন রাজ্যে এ বিষয়ে সতর্কবার্তা জারি করা হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রে আক্রান্ত ছাড়িয়েছে ১২ লাখ। মৃত্যু হয়েছে ৭৪ হাজারের বেশি। দেশটিতে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ২৪ হাজারের বেশি মানুষ প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। জন হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের তথ্য অনুযায়ী, দেশটিতে একদিনেই ২৪ হাজার ২৫২ জন আক্রান্ত হয়েছে এবং মারা গেছে ২ হাজার ৩৬৭ জন।

জন হপকিন্সের ওই পরিসংখ্যান অনুযায়ী, দেশটিতে এখন পর্যন্ত মোট করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ১২ লাখ ২৮ হাজার ৬০৩ এবং মারা গেছে ৭৩ হাজার ৪৩১ জন।
অপরদিকে ওয়ার্ল্ডওমিটারের তথ্য অনুযায়ী, এখন পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১২ লাখ ৬৩ হাজার ১৮৩ এবং মারা গেছে ৭৪ হাজার ৮০৭ জন।

ওই পরিসংখ্যান অনুযায়ী, যুক্তরাষ্ট্রে ইতোমধ্যেই সুস্থ হয়ে উঠেছে ২ লাখ ১৩ হাজার ৮৪ জন। দেশটিতে বর্তমানে করোনার অ্যাক্টিভ কেস ৯ লাখ ৭৫ হাজার ২৯২টি। অপরদিকে ১৫ হাজার ৮২৭ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

যুক্তরাষ্ট্রের ৫০টি অঙ্গরাজ্যেই করোনার প্রকোপ ছড়িয়ে পড়েছে। তবে করোনায় সবচেয়ে বিপর্যস্ত নিউইয়র্ক অঙ্গরাজ্য। সেখানে অন্যান্য অঙ্গরাজ্যের তুলনায় আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা সবচেয়ে বেশি।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

error: Content is protected !!