করোনা: উৎপাদনের আগেই প্রায় সব ‘রেমডিসিভির’ কিনে নিল যুক্তরাষ্ট্র

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের চিকিৎসায় ব্যবহৃত পরীক্ষিত একটি ওষুধ রেমডিসিভির। প্রমাণ পাওয়া গেছে, এ ওষুধ ব্যবহার করে করোনাজনিত কোভিড-১৯ রোগ থেকে দ্রুত সেরে ওঠা যায়। এমন প্রেক্ষাপটে বিশ্বে আগামীতে তৈরি হতে যাওয়া প্রায় সব রেমডিসিভির ওষুধ ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রশাসন কিনে নিয়েছে বলে জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম বিবিসি।

রেমডেসিভির ওষুধটির পেটেন্ট যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক বায়োফার্মাসিউটিক্যাল কোম্পানি গিলিয়াড সায়ন্সেসের। ওষুধটি প্রথমে ইবোলা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের জন্য তৈরি করা হয়েছিল।

ক্লিনিক্যাল পরীক্ষায় দেখা গেছে, নভেল করোনাভাইরাসসহ আরো কিছু ভাইরাস মানুষের দেহে প্রবেশ করে যেভাবে বংশবৃদ্ধি করে এবং রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে ক্ষতিগ্রস্ত করে, সেই প্রক্রিয়া কিছুটা হলেও থামানোর সক্ষমতা রয়েছে এই ওষুধের।

যুক্তরাষ্ট্রের স্বাস্থ্য ও মানবসেবা বিভাগ এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, ট্রাম্প প্রশাসন গিলিয়াডের কাছ থেকে রেমডিসিভিরের পাঁচ লাখ ডোজ কেনার একটি চুক্তি করেছে। এ চুক্তির আওতায় চলতি জুলাই মাসে তৈরি রেমডিসিভির ওষুধের শতভাগ, আগস্টের ৯০ শতাংশ এবং সেপ্টেম্বরের ৯০ শতাংশ কিনে নিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

কোভিড-১৯ রোগীদের চিকিৎসায় রেমডিসিভির কার্যকর হতে পারে, এমন গবেষণার তথ্য গিলিয়াড সায়েন্সেস প্রকাশ করার পর গত সপ্তাহে করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগীদের জরুরি ব্যবহারের উদ্দেশ্যে ওষুধ ব্যবহারের অনুমোদন দেয় যুক্তরাষ্ট্রের ওষুধ নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ।

বলা হচ্ছে, এ ওষুধের প্রয়োগ বেশি অসুস্থ রোগীদের হাসপাতালে থাকার সময়কাল চার দিন পর্যন্ত কমাতে পারে।

রেমডেসিভিরের পেটেন্টের মালিকানা গিলিয়াড সায়ন্সেসের, অর্থাৎ শুধু তাদেরই এ ওষুধ তৈরির অধিকার রয়েছে। কিন্তু জাতিসংঘের স্বল্পোন্নত দেশের তালিকায় নাম থাকায় আন্তর্জাতিক বাণিজ্য নীতি অনুযায়ী এ ওষুধ তৈরির ক্ষেত্রে ওই অধিকার প্রযোজ্য হবে না বাংলাদেশের ওপর।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

error: Content is protected !!