করোনায় ভারতে সুস্থতার হার ২৫%, মৃত্যু ৩.২%

করোনাভাইরাসে ভারতে সুস্থ হওয়ার হার ২৫ শতাংশ। আর মৃত্যুর হার ৩.২ শতাংশ। গেল দুই সপ্তাহের ব্যবধানে হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে সুস্থ হওয়ার হার দ্বিগুণ হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৩০ এপ্রিল) দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের প্রকাশিত পরিসংখ্যানের বরাত দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে এনডিটিভি।

এতে বলা হয়েছে, দেশে করোনায় সুস্থ হওয়ার হার বেড়ে ২৫ দশমিক ১৩ শতাংশ হয়েছে। যা গেল দুই সপ্তাহ আগে ছিল মাত্র ১৩ শতাংশ। এছাড়াও আক্রান্ত সংখ্যা অগ্রগতি হয়েছে।

এর আগে ভরতে লকডাউন করার আগে আক্রান্ত দ্বিগুণ সময় লেগেছিল মাত্র ৩ দশমিক ৪ দিন। কিন্তু সারাদেশে লকডাউন জারির পর রোগীর সংখ্যা ১১ গুণ হয়েছে।

ভারতে করোনায় বর্তমানে মৃত্যুর হার ৩ দশমিক ২ শতাংশ। মৃতদের মধ্যে ৬৫ শতাংশ পুরুষ এবং ৩৫ শতাংশ নারী বলে জানিয়েছে দেশটির এই মন্ত্রণালয়।

বৃহস্পতিবার সংবাদ সম্মেলনে দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম-সচিব লাল আগারওয়াল বলেন, রাজধানী নয়াদিল্লি, উত্তরপ্রদেশ, জম্মু-কাশ্মীর, ওডিশা, রাজস্থান, তামিলনাডু এবং পাঞ্জাবে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা দ্বিগুণ হতে সময় লেগেছে ১১ থেকে ২০ দিন। অন্যদিকে, কর্ণাটক, লাদাখ, হরিয়ানা, উত্তরাখণ্ড এবং কেরালায় ২০ থেকে ৪০ দিনের মধ্যে আক্রান্ত দ্বিগুণ হয়েছে।

এদিকে, ভারতে আগামী ৩ মে পর্যন্ত লকডাউনের সময় বাড়িয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। লকডাউন আবারও বাড়ানো হবে কিনা সে ব্যাপারে শিগগিরই তিনি সিদ্ধান্ত নেবেন বলে দেশটির সরকারি সূত্রগুলো জানিয়েছে।

এনডিটিভির খবরে বলা হয়েছে, দিল্লি, মুম্বাই এবং আহমেদাবাদ শহরে সবচেয়ে বেশি করোনা রোগী পাওয়া গেছে।

ভারতে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর সুস্থ হয়ে উঠেছেন মোট ৮ হাজার ৩২৪ জন। মোট আক্রান্ত ৩৩ হাজার ৫০ জনে পৌঁছেছে। করোনায় এখন পর্যন্ত এক হাজার ৭৪ জন মারা গেছেন।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

error: Content is protected !!