করোনাভাইরাস: বেইজিংয়ে মাস্ক ছাড়া চলার অনুমতি

মহামারি করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে গোটা বিশ্ব। তার মধ্যেই মহামারি সংক্রান্ত বিধিনিষেধ শিথিল করতে শুরু করছে করোনার উৎপত্তিস্থল চীন। এবার মাস্ক পরাও আর বাধ্যতামূলক থাকছে না রাজধানী বেইজিংয়ে। বরং এবার থেকে চাইলে মাস্ক না পরেই বাড়ির বাইরে বের হতে পারবেন বেইজিংয়ের নাগরিকরা।

হিন্দুস্তান টাইমস এক প্রতিবেদনে জানায়, শুক্রবার (২১ আগস্ট) বেইজিংয়ের স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তরফ থেকে এমনটাই জানানো হয়েছে।গত ১৩ দিনে নতুন করে শহরটিতে করোনাভাইরাসে কেউ আক্রান্ত না হওয়ার পর এ সিদ্ধান্ত এলো। তবে সরকারিভাবে এ সিদ্ধান্ত জানানোর পরও আজ শুক্রবার বেইজিংয়ে বহু মানুষ মাস্ক পরে বাইরে বের হয়েছেন।

এ প্রসঙ্গে বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এক নারী বলেন, ‘এখনই মাস্ক খুলে ফেলতে পারি আমি। কিন্তু বাকিরা সেটা মেনে নেবেন কি না, সেটা আগে জানা প্রয়োজন। আমাকে মাস্ক না পরতে দেখে বাকিদের মনে আতঙ্কের সৃষ্টি হতে পারে।’

সবে পরিস্থিতি সামাল দেওয়া গেছে, তাই এত তাড়াতাড়ি মাস্ক খুলে ফেলা ঠিক হবে কি না, তা নিয়েও একটু দুশ্চিন্তায় বলে জানান ওই নারী।
গত বছরের শেষ দিকে চীনের উহানে প্রথম নভেল করোনা থাবা বসায়। তারপর থেকে দুদফায় একটানা লকডাউন চলে সেখানে। তবে গত কয়েক মাসে পরিস্থিতি অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে এনে ফেলতে সক্ষম হয় তারা। সেই কারণেই ধীরে ধীরে বিধিনিষেধ শিথিল হতে শুরু করে সেখানে।
এবার দ্বিতীয়বারের মতো মাস্ক পরার ওপর বাধ্যবাধকতা তুলে নিয়েছে বেইজিং স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ। এর আগে এপ্রিলে একবার তুলে নেওয়ার পর জুনে পুনরায় ভাইরাস দেখা দিলে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করা হয়।
স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা বলছেন, রোগ নিয়ন্ত্রণে দেশের সাফল্যের মূল চাবিকাঠি ছিলো মাস্ক পরা, বাধ্যতামূলক হোম কোয়ারেন্টাইন এবং সামাজিক দূরত্ব মেনে চলতে বাধ্য করা।

চীনে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব দেখা দেওয়ার পর থেকে মোট ৮৪ হাজার ৯১৭ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে ৪ হাজার ৬৩৪ জন মারা গেছে ।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

error: Content is protected !!