করোনা জয়ীরা ফের আক্রান্ত হতে পারেন, মত বিশেষজ্ঞদের

প্রাণঘাতী করোনায় প্রতিনিয়তই হাজারে হাজারে বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা। এ ভাইরাসে আক্রান্ত অনেকে এরই মধ্যে সুস্থ হয়ে উঠেছেন। এরই মধ্যে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার বিশেষজ্ঞরা হুশিয়ার করে বলেছেন, করোনা থেকে সেরে উঠলেও ফের আক্রান্ত হতে পারেন। এমনকী সেরে ওঠা ব্যক্তিদের প্লাজমায় আক্রান্তদের সেরে ওঠার সম্ভাবনাও নস্যাৎ করে দিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।

প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছিল, একবার করোনা যুদ্ধে জয়ী হলে আর আক্রান্ত হওয়ার সম্ভবনা থাকে না। এমনকী মারণ জীবাণুর বিরুদ্ধে তাঁদের শরীরের অ্যান্টিবডি তৈরি হয়ে যায়। যা সংকটজনক করোনা রোগীর চিকিৎসায় ব্যবহার করা যেতে পারে।

বিশ্বজুড়ে করোনা জয়ীদের রক্ত পরীক্ষা করা হচ্ছে। দেখা হচ্ছে, নোভেল করোনা জীবাণুর বিরুদ্ধে তাঁদের রক্তের প্লাজমায় অ্যান্টিবডি কতটা তৈরি হচ্ছে। চলছে একের পর এক পরীক্ষা। চিকিৎসকদের ভাষায় যাকে সেরোলজি টেস্ট বলা হচ্ছে।

পরিসংখ্যান বলছে, শুধুমাত্র ব্রিটেনেই এপর্যন্ত ৩.৫ মিলিয়ন পরীক্ষা হয়েছে। বিভিন্ন দেশে আক্রান্তদের দেহ থেকে রক্তরস নিয়ে প্লাজমা থেরাপি চালুর তোড়জোরও শুরু করে দিয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার এই দাবিতে মুখ থুবড়ে পড়তে পারে প্লাজমা থেরাপির ভাবনাচিন্তাও।

জেনেভার এক সাংবাদিক বৈঠকে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার এক শীর্ষ চিকিৎসক ড. মারিয়া ভান কেরখোভে বলেন, বহু দেশে ব়্যাপিড সেরোলজি টেস্ট করা হচ্ছে। কিন্তু এই মুহূর্তে আমাদের কাছে কোনও প্রমাণ নেই যে সেরোলজি পরীক্ষা কারোর শরীরের করোনা প্রতিরোধ ক্ষমতার প্রমাণ দিতে পারে। বা সে যে ফের আক্রান্ত হবে না, তাও প্রমাণ করতে পারে না এই পরীক্ষা।

বিশেষজ্ঞ এই চিকিৎসক আরও জানান, এই পরীক্ষা দেহে থাকা অ্যান্টিবডির হদিশ দিতে পারে। কিন্তু কখনওই প্রমাণ করে না যে তাঁরা আক্রান্ত হবেন না। ফলে সেই সেরে ওঠা রোগীদের প্লাজমা দিয়ে যে আ্ক্রান্তের চিকিৎসা করার ভাবনাচিন্তা শুরু হয়েছিল, তা অনেকটাই ধাক্কা খাবে বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

error: Content is protected !!