এবার যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডায় হতে যাচ্ছে স্থায়ী শহীদ মিনার

ফ্লোরিডা প্রতিনিধি

যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডায় এবার নির্মিত হতে যাচ্ছে একটি স্থায়ী শহীদ মিনার। যুক্তরাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ স্টেট ফ্লোরিডার ওয়েস্ট পাম বিচের বয়নটন বিচ সিটির সারা সিম পার্কে এই শহীদ মিনার প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ নিয়েছেন একদল প্রবাসী বাংলাদেশি।

গত তিন বছর ধরে সেই প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে আমেরিকান বাংলাদেশ পাবলিক অ্যাফেয়ার্স কমিটি (এবিপ্যাক) নামের একটি সংগঠন। সেই উদ্যোগের সঙ্গে একাত্মতা জানিয়েছেন বয়নটন বিট সিটি মেয়র স্টিফেন বি গ্রান্ট।
এবিপ্যাকের উদ্যোগে গত তিন বছর ধরে পালিত হচ্ছে অমর একুশে ফেব্রুয়ারি ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস। এবারো যথাযথ মর্যাদায় সারা সিম পার্কে দিনটি পালিত হয়। করোনা মহামারির এই সময়ে সিডিসি’র নীতিমালা অনুসরণ করে পার্কের উন্মুক্ত মাঠে আয়োজিত অনুষ্ঠানে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক বাংলাদেশি অংশগ্রহণ করে।

সেখানে নির্মাণ করা হয় দৃষ্টিনন্দন অস্থায়ী একটি শহীদ মিনার। ফ্লোরিডার স্থানীয় সময় রবিবার দুপুরে যুক্তরাষ্ট্র ও বাংলাদেশের জাতীয় সংগীত পরিবেশনের মাধ্যমে অনুষ্ঠান শুরু হয়। এরপর একুশে ফেব্রুয়ারির অমর সংগীত পরিবেশন করেন স্থানীয় শিল্পীরা।

লেখক ও সাংবাদিক শামীম আল আমিনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে অতিথি ছিলেন বয়নটন বিচ সিটি মেয়র স্টিফেন বি গ্র্যান্ট, পাম বিচ কাউন্টির ডিসট্রিক্ট টু-এর কমিশনার গ্রেগ ওয়াজ। মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল লতিফ অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন আয়োজক সংগঠন এবিপ্যাকের সিইও ও প্রতিষ্ঠাতা ইমন করিম, প্রেসিডেন্ট আব্দুল কাদের সরকার, সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম সরকার, সিওও মাহি হোসেন, ভাইস প্রেসিডেন্ট টিটন মালিক, সিএফও আব্দুল্লাহ রিপন, ট্রেজারার একরামুল হোসেন রুবেল, পাম বিচ কাউন্টির প্রেসিডেন্ট আরশাদ আলী, ব্রওয়ার্ড কাউন্টির প্রেসিডেন্ট আরিফুল হক টনি, ডেড কাউন্টির প্রেসিডেন্ট আব্দুল সালাম, সেন্ট লুসি কাউন্টির প্রেসিডেন্ট মো. আকরাম হোসেন এবং অরল্যান্ডো কমিটির প্রেসিডেন্ট এ কে এম হোসেন হিটুসহ অনেকে।

অনুষ্ঠানে শিশুরা নাচ পরিবেশন করে। দেশের গানের সঙ্গে প্রবাসে বেড়ে ওঠা তাজরিয়ান করিম, তাহিয়াত সরকার, মানহা এবং মুনিবার নাচ সবাইকে মুগ্ধ করে। এছাড়া আবৃত্তি করেন রুবি আওলাদ, গান গেয়ে শোনান সোনিয়া সুইটি, আলমগীর হোসেন, সুমন বিশ্বাস, আয়েশা বিশ্বাস এবং কে জামান বাবু। এছাড়া সাউথ ফ্লোরিডার জনপ্রিয় সাংস্কৃতিক সংগঠন একতারার শিল্পীদের পরিবেশনাও ছিল চমৎকার।

অনুষ্ঠানে বয়নটন বিচ সিটি মেয়র স্টিফেন বি গ্রান্ট জানিয়েছেন, এবিপ্যাক এর পক্ষ থেকে স্থায়ী একটি শহীদ মিনার তৈরির বিষয়ে প্রস্তাব পাওয়ার পর এ নিয়ে তিনি উদ্যোগী হয়েছেন। এরই মধ্যে সিটির বোর্ড সভায় কয়েক দফা এ নিয়ে আলোচনা হয়েছে। আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের প্রতি শ্রদ্ধা জানানোর জন্যে শহীদ মিনার স্থাপনের বিষয়ে তার সর্বাত্মক প্রচেষ্টা থাকবে বলেও জানান মেয়র।

এবিপ্যাক এর সিইও ইমন করিম বলেছেন, বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের আদলে যেন বয়নটন বিচ সিটিতে একটি শহীদ মিনার স্থাপন করা যায়, তার জন্যে জোড়ালো প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন তারা। এরই মধ্যে শহীদ মিনারের ডিজাইন ও অন্যান্য কাগজপত্র জমা দেওয়া হয়েছে। খুব শিগগিরই শহীদ মিনার নির্মাণের ব্যাপারে আশাবাদী তিনি।

এরই মধ্যে টেক্সাসের হিউস্টন, ক্যালিফোর্নিয়ার লস অ্যাঞ্জেলেস, নিউজার্সির প্যাটারসনে স্থায়ী শহীদ মিনার হয়েছে। এছাড়া যুক্তরাষ্ট্রের রাজধানী ওয়াশিংটন ডিসিতে বাংলাদেশ দূতাবাসের ভেতরে একটি স্থায়ী শহীদ নির্মাণ করা হয়েছে। ফ্লোরিডায় নির্মিত হলে তা হবে যুক্তরাষ্ট্রের মাটিতে পঞ্চম শহীদ মিনার।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

error: Content is protected !!