এক ধাক্কায়  হাওয়া জাকারবার্গের ৭০০ কোটি ডলার!

তথ্য-প্রযুক্তির অংশ হিসেবে বর্তমানে বহুল ব্যবহৃত সামাজিক মাধ্যম তথা ফেসবুক থেকে বড় বড় কোম্পানি বিজ্ঞাপন সরিয়ে নিচ্ছে। ফেসবুকে বর্ণবাদ ও ঘৃণ্য বক্তব্য ছড়ানোর প্রতিবাদে এ মাধ্যম বর্জনের জন্য #স্টপহেটফরপ্রফিট আন্দোলন জোরদার হচ্ছে। এ পরিস্থিতি সামলাতে ফেসবুকের প্রধান নির্বাহী মার্ক জাকারবার্গ ঘৃণ্য বক্তব্য ঠেকানোর কৌশল, পোস্টে লেবেল লাগানোসহ নানা পরিবর্তন আনার কথা বলেছেন। তারপরও ফেসবুকের ওপর আস্থা রাখতে পারছেন না অনেকেই। এতে এক ধাক্কায় ফেসবুকের প্রধান নির্বাহীর সম্পদ ৭০০ কোটি ডলার কমে গেছে।

বার্তা সংস্থা এএফপির তথ্য অনুযায়ী, জাকারবার্গের সম্পদের পরিমাণ আগের তুলনায় ৭২০ কোটি মার্কিন ডলার কমে গেছে। গত শুক্রবার ফেসবুকের শেয়ারের ৮ দশমিক ৩ শতাংশ দরপতন ঘটে। গত তিন মাসের মধ্যে ফেসবুক শেয়ারের এতটা পতন ঘটেনি। ফেসবুকে এ বছরে বিজ্ঞাপন বন্ধের ঘোষণা দিয়ে সবচেয়ে বড় ধাক্কা দিয়েছে ইউনিলিভার। ফেসবুকের অন্যতম বৃহৎ বিজ্ঞাপনদাতা প্রতিষ্ঠান ইউনিলিভার। ইতিমধ্যে ৯০টির বেশি প্রতিষ্ঠান ফেসবুকে বিজ্ঞাপন বর্জন করার ঘোষণা দিয়েছে।

ব্লুমবার্গ বিলিয়নিয়ার সূচক অনুযায়ী, শেয়ারের দাম পড়ে যাওয়ায় জাকারবার্গের মূল সম্পদের পরিমাণ কমে দাঁড়িয়েছে ৮ হাজার ২৩০ কোটি মার্কিন ডলারে। সম্পদের পরিমাণ কমায় বিশ্বের শীর্ষ ধনীর তালিকা থেকেও এক ধাপ নেমে গেছেন তিনি। এ কারণে বর্তমানে বিশ্বের ধনীর তালিকায় শীর্ষ তিন থেকে সরে জাকারবার্গ এখন চারে। জেফ বেজোস ও বিল গেটসের পর তৃতীয় স্থানে উঠে এসেছেন লুই ভুটনের প্রধান নির্বাহী বার্নার্ড আরনল্ট।

ঘৃণ্য বক্তব্য ব্যবস্থাপনা নিয়ে সমালোচনার জের ধরে ভেরিজন, হার্শের মতো বড় প্রতিষ্ঠান ফেসবুকে বিজ্ঞাপন বন্ধ করে দিয়েছে। এ তালিকায় যুক্ত হয়েছে কোকা–কোলাও। তারা আপাতত এক মাস ফেসবুকে বিজ্ঞাপন দেওয়া বন্ধ রাখবে বলে জানিয়েছে।

মার্ক জাকারবার্গ অবশ্য বিজ্ঞাপন বর্জন নিয়ে সরাসরি কোনো মন্তব্য করেননি। তবে সমালোচনার জবাব দিয়েছেন। তিনি বলেছেন, ফেসবুক ভোটসংক্রান্ত পোস্টে লেবেল লাগাবে। এ ছাড়া যার কাছ থেকেই ঘৃণ্য বক্তব্য (হেট স্পিচ) আসুক না কেন, তা নিষিদ্ধ হবে। এর ব্যতিক্রম নন রাজনীতিবিদেরাও।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

error: Content is protected !!