ইরানের পারমাণবিক স্থাপনায় সাইবার হামলা!

ইরানের দক্ষিণাঞ্চলের ইসফাহান প্রদেশের ভূগর্ভস্থ নাতাঞ্জ প’রমাণবিক স্থাপনায় অগ্নিকাণ্ড ঘটে। তবে এতে কেউ হতাহত হয়নি এবং স্থাপনার কাজকর্ম অব্যাহত রয়েছে। ২ জুলাইয়ের এ ঘটনায় পারমাণবিক স্থাপনায় অগ্নিকাণ্ডের কারণ নির্ধারণ করেছেন ইরানি তদন্তকারীরা। 

তবে দেশটির শীর্ষ নিরাপত্তা সংস্থার প্রধান শুক্রবার বলেছেন, নিরাপত্তাজনিত কারণে তদন্ত প্রতিবেদনের বিস্তারিত এখনই জানানো যাবে না। একই দিন দেশটির বেসামরিক প্রতিরক্ষা প্রধান গোলাম রেজা জালালি রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনকে জানিয়েছেন, পারমাণবিক স্থাপনায় সাইবার হামলা চালানো যে কোনো দেশের বিরুদ্ধেই প্রতিশোধ নেবে তেহরান।

সে দেশের তিনজন কর্মকর্তার বিবৃতি দিয়ে রয়টার্স জানায়, সাইবার হামলার কারণেই ওই অগ্নিকাণ্ড হয়। তবে ওই কর্মকর্তারা নিজেদের দাবির স্বপক্ষে কোনো প্রমাণ দিতে পারেনি। ইরানের ন্যাশনাল সিকিউরিটি কাউন্সিলের প্রধান কেভান খোসরাভি শুক্রবার রাতে রাষ্ট্রীয় আইআরএনএকে বলেছেন, বিশেষজ্ঞরা ঘটনার মূল কারণ চিহ্নিত করেছেন। তিনি বলেন, বিষয়টির তদন্তের জন্যে নির্দিষ্ট সময় পরে তা ঘোষণা করা হবে। ”চিতা অব হোমল্যা’ন্ড” নামে একটি গ্রুপ ওই ঘটনার দায় স্বীকার করেছে বলে বিবিসির খবরে প্রকাশ করলে ওই ঘটনায় রহস্য দানা বেঁধে ওঠে। একই সময়ে ইরানি সংবাদমাধ্যম এই ঘটনার জন্য যুক্তরাষ্ট্র ও ইসরায়েলকে দায়ী করে।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

error: Content is protected !!