আমরা ভারতীয় সেনার সাথে, চীন দূর হঠো

লাদাখ ইস্যুতে তোলপাড় গোটা ভারত। দাবি উঠেছে চীনা পণ্য বয়কটের। এই পরিস্থিতিতে ভারতের পাশেই দাঁড়ালেন কলকাতার চায়না টাউনের তৃণমূলের কর্মী-সমর্থকরা। সুর চড়ালেন চীনের বিরুদ্ধে। 

প্রসঙ্গত, চীনের নৃশংসতায় প্রাণ দেওয়া ২০ জন সেনার মধ্যে রয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের দু’জন। একজন বীরভূমের বাসিন্দা অপরজন আলিপুরদুয়ারের। গতকালই ঘরে ফিরেছে তাদের দেহ। অবিলম্বে বীরভূমের সেনার বোনকে চাকরি দেওয়ার প্রতিশ্রুতিও দিয়েছে প্রশাসন। শনিবার আলিপুরদুয়ারে শহিদ বিপুলের পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে অর্থ। 

ভারত-চীন সংঘর্ষে ভারতীয় সেনাদের প্রাণ ত্যাগের ক্ষ’ত এখনও টাটকা। ক্ষো’ভের আ’গুন জ্বলছে প্রত্যেক ভারতের ভিতর। পশ্চিমবঙ্গের ছবিটাও ভিন্ন নয়। সেনাদের উপর চীনাদের নৃশংসতার ছবি প্রকাশ্যে আসতেই ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছে শহর থেকে জেলা। 

রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তের বাসিন্দারা দাবি তুলেছেন চীনা পণ্য বয়কটের। এই পরিস্থিতিতে ২০ জুন,  শনিবার কলকাতার চায়না টাউনের তৃণমূলের কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে একটি প্রতিবাদ মিছিলের আয়োজন করেন জাভেদ খান ও তার পুত্র ফইয়াজ খান। সেই প্রতিবাদ মিছিল থেকে চীনা, বাংলা, হিন্দি ও ইংরাজি ভাষায় চীনা বর্বরতার বিরুদ্ধে সরব হন চীন প্রবাসীরা। পাশে দাঁড়ান ভারতীয় সেনারা।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

error: Content is protected !!