অভিনেত্রী কঙ্গনার মাদকাসক্ত হওয়ার ভিডিও ভাইরাল

বলিউড উত্তাল মাদককাণ্ডে। রিয়া শৌভিকের পর এবার নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরোর নজরে রিয়ার বয়ানে উল্লেখিত ২৫ জন বলিউড অভিনেতারা। এ সব ডামাডোলের মধ্যে হঠাৎ ভাইরাল হয়েছে, ভারতের জনপ্রিয় অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউতের একটি পুরানো ভিডিও। সেই ভিডিওতে কঙ্গনাকে প্রকাশ্যেই বলতে শোনা যাচ্ছে, কেরিয়ারের শুরুতে মাদক সেবনের কথা, মাদকাসক্ত হওয়ার কথা।

কঙ্গনার ইনস্টাগ্রামে চলতি বছরের মার্চে পোস্ট করা হয়েছিল ওই ভিডিওটি। ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, মানালির বাড়িতে বসে কঙ্গনা বলছেন, ‘ছোটবেলাতেই বাড়ি থেকে পালিয়ে চলে এসেছিলাম। এর কয়েক বছরের মধ্যেই আমি ফিল্মস্টার হই। একই সঙ্গে হয়ে উঠি মাদকাসক্তও।’ তখন সদ্য কেরিয়ার শুরু, মিলছে খ্যাতি কিন্তু ব্যক্তিগত জীবনে ঝড়, জানান কঙ্গনা। তার কথায়, “জীবনকে কেন্দ্র করে অনেক কিছু হচ্ছিল। অদ্ভুত সব মানুষ জীবনের সঙ্গে জুড়ে গিয়েছিল হঠাৎ। আমার তখন ১৮-ও হয়নি। টিনএজার ছিলাম’।

ভিডিওটি ভাইরাল হতেই নেটিজেনদের একাংশের প্রশ্ন হল, সুশান্ত কাণ্ডে মাদক নিয়ে যে কঙ্গনা প্রথম থেকেই কথা বলছেন, যে কঙ্গনা প্রকাশ্যে বলেছিলেন বলিউড তারকাদের প্রায় ৯৯ শতাংশই মাদক নেন, সেই কঙ্গনা নিজেও ব্যতিক্রমী নন? এরই মধ্যে আবার ২০১৬ সালে কঙ্গনার প্রাক্তন প্রেমিক অধ্যয়ন সুমনের দেওয়া সাক্ষাৎকার যেন আগুনে ঘি ঢালার মত।

প্রায় চার বছর আগে অধ্যয়ন এক সংবাদমাধ্যমে দাবি করেছিলেন কঙ্গনা নাকি তার জন্মদিনের পার্টিতে অধ্যয়নকে কোকেন নেওয়ার জন্য জোর করেছিলেন। অধ্যয়ন তা অস্বীকার করায় কঙ্গনার সঙ্গে তার ভীষণ ঝামেলা হয়।

অধ্যয়ন বলেছিলেন, ‘২০০৮ সালে কঙ্গনা তার জন্মদিনে ‘দ্য লীলা’তে কাছের মানুষদের আমন্ত্রণ জানায়। আমায় হঠাৎ করেই ও বলে ‘চল আজ সারারাত কোকেন নিই’। এর আগে আমি কঙ্গনার সঙ্গে গাঁজা খেয়েছি। আমার ভাল লাগেনি। আমি না বলি। এর পরেই কঙ্গনা রেগে যায়। আমাদের মধ্যে বিশ্রী ঝামেলা শুরু হয়।’

যদিও কয়েক দিন আগে কঙ্গনা তার ইনস্টাগ্রাম হ্যান্ডেলে মুম্বাই পুলিশকে ট্যাগ করে লেখেন, “দয়া করে আমার ড্রাগ টেস্ট করুন। আমার কল রেকর্ডও চেক করতে পারেন। যদি কোন মাদক পাচারকারীর সঙ্গে আমার যোগাযোগ প্রমাণ করতে পারেন অথবা খুঁজে পান তবে আমি আমার ভুল স্বীকার করব এবং সারাজীবনের জন্য মুম্বাই ছেড়ে দেব।”

অন্যদিকে, মুম্বাই পুলিশ সূত্রে খবর পাওয়া গেছে, মাদককাণ্ডে তদন্ত শুরু হতে চলেছে বলিউডের অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউতের বিরুদ্ধে। মহারাষ্ট্রের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অনিল দেশমুখ শুক্রবার (১১ সেপ্টেম্বর) বিধানসভায় বলেন, কঙ্গনার প্রাক্তন প্রেমিক অধ্যয়ন সুমন সংবাদ মাধ্যমকে জানিয়েছেন— ‘২০১৬ সালে একটি পার্টিতে অভিনেত্রী নিজে কোকেন নিয়েছেন, তাকেও নেশা করার জন্য পীড়াপীড়ি করেছেন। এর তদন্ত হবে।’

এর পরেই মহারাষ্ট্র সরকার চিঠি দিয়ে বিষয়টি তদন্তের নির্দেশ দেয় মুম্বাই পুলিশকে। পুলিশ সূত্রে খবরে, নির্দেশ মেনে তারা অচিরেই তদন্ত শুরু করবে। এবং তলব করা হতে পারে অধ্যয়ন ও কঙ্গনাকে ।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

error: Content is protected !!